এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার কি আয়করেও বড়সড় ছাড়? অর্থমন্ত্রকের “ইঙ্গিত” ঘিরে ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা

এবার কি আয়করেও বড়সড় ছাড়? অর্থমন্ত্রকের “ইঙ্গিত” ঘিরে ক্রমশ বাড়ছে জল্পনা



যত দিন যাচ্ছে, ততই যেন আশা-প্রত্যাশা বাড়ছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের প্রতি। ইতিমধ্যেই শিল্প সংস্থার জন্য কর্পোরেট কর কমিয়েছে কেন্দ্র। আর এবার জনসাধারনের আয়করও কেন্দ্র কমাবে বলে তীব্র প্রত্যাশা দেখা দিতে শুরু করল। বস্তুত, সম্প্রতি প্রত্যক্ষ কর বিধি সংক্রান্ত টাস্কফোর্সের পক্ষ থেকে আয়কর কাঠামো পরিবর্তনের সুপারিশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, এই সুপারিশ যদি কার্যকর হয়, তাহলে মধ্যবিত্ত চাকুরীজীবীরা সবথেকে বেশি লাভবান হবেন। পাশাপাশি নতুন এই করের হার কার্যকরি বলে আয়করের বোঝা বছরে প্রায় 1.5 লক্ষ টাকা কমবে বলেও দাবি একাংশের। কিন্তু কি হবে? সত্যিই কি এই ব্যপারে আশাজনক কোনো কিছু ঘোষণা করবে কেন্দ্র?


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে কিছুটা জল্পনাকে জিইয়ে রেখেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এদিন তিনি বলেন, “আয়করের কাঠামোয় পরিবর্তন নিয়ে সরকার এখনও কোনো ভাবনাচিন্তা করেনি। টাস্কফোর্সের রিপোর্টে চোখ বুলিয়েছি। কিন্তু রিপোর্টের সুপারিশ খতিয়ে দেখার কাজ চলছে।”

বিশেষজ্ঞদের দাবি, এই টাক্সফোর্সের সুপারিশ যদি কার্যকর হয়, তাহলে যাদের বার্ষিক আয় 5 লক্ষ টাকা থেকে দশ লক্ষ টাকার মধ্যে, তাদের আয়করের হার 10 শতাংশে নেমে আসবে। অন্যদিকে 10 লক্ষ টাকা থেকে 20 লক্ষ টাকা যাদের আয়, তাদের আয়করের হার 20 শতাংশে নেমে আসবে। অন্যদিকে বর্তমানে আয়কর কাঠামোয় 5, 20 ও 30 শতাংশ এই তিন ধরনের করের হার থাকলেও টাস্কফোর্সের সুপারিশ অনুযায়ী পাঁচ রকম করের হার চালু করার কথা বলা হয়েছে। যেখানে 5, 10, 20, 30 এবং 35 শতাংশ করের কথা বলা হয়েছে।

তবে লোকসভা ভোটের আগে অন্তর্বর্তী বাজেটে ঘোষণা করা হয়েছিল যে, কেউ আয়কর ছাড়ের সমস্ত রকম সুবিধা নিলে তাকে 5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর দিতে হবে না। কিন্তু এর ফলে ঠিক কতটা সুবিধা হবে? শিল্পমহলের একাংশ বলছেন, শুধুমাত্র কর্পোরেট কমালেই হবে না। এর ফলে বাজারে যে চাহিদার অভাব রয়েছে, তার জন্য আম জনতার হাতে নগদের যোগান বেশি থাকা দরকার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!