এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ‘ডাবল পাঞ্জাবিতে’ জমজমাট মুখ্যমন্ত্রীর ভাইফোঁটা, ‘বিশেষ উপহার’ একজনের জন্য

‘ডাবল পাঞ্জাবিতে’ জমজমাট মুখ্যমন্ত্রীর ভাইফোঁটা, ‘বিশেষ উপহার’ একজনের জন্য

আজ বাঙালির অন্যতম প্রাণের উৎসব ভ্রাতৃদ্বিতীয়া। সকাল থেকেই দিদি-বোনেরা ভাইয়ের কপালে ফোঁটা আর যমের দুয়ারে কাঁটা দিতে ব্যস্ত। আর নিজে ভিভিআইপি মানুষ হয়েও রাজ্যের ‘দিদি’ হয়ে সেই উৎসবে প্রতি বছরের মত নিজেকে নিয়োজিত রাখলেন রাজ্যের প্রশাসনিক সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সকাল থেকেই হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে আনাগোনা ছিল বিশিষ্টদের – একদিকে মুখ্যমন্ত্রী যেমন নিজের আপন ভাইদের কপালে ফোঁটা দিয়েছেন – তেমনই তাঁর ভাইফোঁটা থেকে বঞ্চিত হন নি গোটা তৃণমূল পরিবার বা সিলিব্রিটিরাও।

প্রত্যেক বছরের মত এবারেও মুখ্যমন্ত্রীর নিজের ভাইদের পাশাপাশি তাঁর হাত থেকে ভাইফোঁটা নিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের একঝাঁক শীর্ষনেতা ও রাজ্যের মন্ত্রী। তবে, এবছরই মুখ্যমন্ত্রীর হাত থেকে প্রথম ভাইফোঁটা নিলেন এই মুহূর্তে বাংলা চলচিত্রের সেরা নায়ক প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ভাইদের কপালে ফোঁটা দেওয়ার পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রী সকলের হাতে উপহার হিসাবে তুলে দেন দুটি করে পাঞ্জাবি বলে সূত্রের খবর।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তবে সবাইকে দুটি করে পাঞ্জাবি দিলেও বিশেষ উপহার পেলেন ছোটভাই স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায়, যিনি বাবুন নামেই বেশি পরিচিত। সংবাদমাধ্যমকে নিজের প্রতিক্রিয়ায় বাবুনবাবু জানিয়েছেন, আমি তো সবার থেকে ছোট, তাই বেশি ভালোবাসা পেয়েছি। একই সাথে তিনি জানিয়েছেন, যেহেতু তাঁর দিদি ‘জনগনেরও’ দিদি – তাই, জনগনের মঙ্গল কামনায় সারা বছর দিদির কাটে, দিদিকে ভাই হিসাবে সেইভাবে তাঁরা কাছে পান না। আর তাই ভাইফোঁটা বা রাখির মত দিনগুলির জন্য তাঁদের গোটা পরিবার মুখিয়ে থাকে, এগুলি অত্যন্ত ‘স্পেশাল’ দিন, দিদিকে কাছে পাওয়া যায় বলে।

প্রসঙ্গত, বাবুনবাবু দিদির দেখানো পথেই জনগনের সেবা করতে প্রত্যক্ষ রাজনীতির ময়দানে আসতে চান বলে নিজেই সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছিলেন। আর, এর পর থেকেই জল্পনা শুরু হয় যে আগামী লোকসভা নির্বাচনে হাওড়া আসন থেকে তিনি টিকিট প্রত্যাশী। ইতিমধ্যেই, রাজ্যের বিভিন্ন ক্রীড়া সংস্থার মাথায় বসেছেন তিনি, এমনকি কিছুদিন আগেই মোহন বাগানের ভোটযুদ্ধেও জেতেন। এরপর, সব থেকে ছোট হিসাবে দিদির ‘স্পেশাল’ উপহার পেয়ে তিনি যেন আরও টগবগে। এখন দেখার, ভাইফোঁটার ‘স্পেশাল’ উপহারের পাশাপাশি ‘দিদি’ তাঁর জন্য লোকসভা টিকিটের মত আরও ‘স্পেশাল’ কোন উপহার তুলে রেখেছেন কিনা – সেদিকেই আপাতত নজর রাজ্য-রাজনীতির কারবারিদের।

Top
error: Content is protected !!