এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পঞ্চায়েতের ‘সন্ত্রাস’ নিয়ে রাজ্যের রিপোর্টে না খুশ দিল্লি, চাপ বাড়িয়ে ‘সঠিক’ রিপোর্ট দাবি

পঞ্চায়েতের ‘সন্ত্রাস’ নিয়ে রাজ্যের রিপোর্টে না খুশ দিল্লি, চাপ বাড়িয়ে ‘সঠিক’ রিপোর্ট দাবি

রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন পর্ব থেকেই শাসকদল সীমাহীন সন্ত্রাস চালাচ্ছে বলে বিরোধীদের দাবি। এই নিয়ে বিরোধীরা আদালতে পর্যন্ত গেছেন, ফলে শাসকদলের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় যেটা ৩৪% আসনের ভাগ্য আপাতত সুপ্রিম কোর্টের হাতে বন্দি আগামী ৩ রা জুলাই পর্যন্ত। কিন্তু বাকি যে ৬৬% আসনে ভোটগ্রহণ হল গত ১৪ মে, সেখানেও বিরোধীদের অভিযোগ শাসকদল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা সীমাহীন সন্ত্রাস করেছেন, ফলে এখনো পর্যন্ত প্রাণ গেছে ২৫ জনের। অন্যদিকে শাসকদলের দাবি খুন হওয়া রাজনৈতিক কর্মীরা বেশিরভাগই তাঁদের, অন্য যে কজন অন্যদলের মারা গেছে তাঁরা নিজেরা বোমা নিয়ে যাচ্ছিল যা ফেটে মারা যায়। সবথেকে বড় কথা বিগত পঞ্চায়েতের থেকে প্রাণহানি এবারে অনেক কম। রাজ্য সরকারের সুরেই সুর মিলিয়ে রাজ্য পুলিশের ডিজি সুরজিত্‍ কর পুরকায়স্থও সাংবাদিক বৈঠকে জানান, আগের থেকে প্রাণহানি কম, কয়েকটি বিক্ষপ্ত ঘটনা ঘটেছে মাত্র। কিন্তু রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে বিরোধীদের অভিযোগ এবং রাজ্যপালের রিপোর্টার ভিত্তিতে চিন্তিত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চেয়ে পাঠায়।

রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজ্য সরকার বা রাজ্য পুলিশের ডিজির বক্তব্যকেই রিপোর্ট আকারে পাঠায় বলে সূত্রের খবর। কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সেই রিপোর্ট পেয়ে আদৌ সন্তুষ্ট নয়। আজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক থেকে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে জানানো হয়েছে, আগের রিপোর্টে কেন্দ্র সন্তুষ্ট নয়। ২৫ জনের মৃত্যু, অন্তত ৭-৮ টি জেলায় লাগামছাড়া সন্ত্রাসের অভিযোগ, বুথজ্যাম, ছাপ্পা, ব্যালট বাক্স ছিনতাই, জল ঢেলে দেওয়া, আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া, পুকুরে ফেলে দেওয়া সবকিছু নিয়েই পুঙ্খানুপুঙ্খ তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। রাজ্য সরকার এখন কি রিপোর্ট পাঠায় সেদিকেই তাকিয়ে সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!