এখন পড়ছেন
হোম > খেলা > ক্রিকেটের বিশ্বযুদ্ধ – একনজরে দেখে বিশ্বকাপের আসরে সর্বাধিক রান সংগ্রহকারীদের তালিকা

ক্রিকেটের বিশ্বযুদ্ধ – একনজরে দেখে বিশ্বকাপের আসরে সর্বাধিক রান সংগ্রহকারীদের তালিকা

ইংল্যান্ডে শুরু হয়ে গেছে বিশ্ব ক্রিকেটের মহারণ – বিশ্বযুদ্ধ। ভারতবাসী আবার তাকিয়ে ১৯৮৩-এর কপিল দেব বা ২০১১-এর মহেন্দ্র সিং ধোনির মত আরও একবার ভারতবাসীকে গর্বিত করুন বিরাট কোহলির টীম ইন্ডিয়া। আর সেই বিশ্বজয়ের লক্ষ্যে কোহলিরা মাঠে নামছেন আগামী বুধবার, সাউদাম্পটনে – দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। তার আগে একনজরে দেখে নিন এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে খেলা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বাধিক রান সংগ্রহ করেছেন কারা। নীচে দেওয়া হল সেরা দশের তালিকা –

১০. অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (অস্ট্রেলিয়া) – ১৯৯৯ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৩১ টি ম্যাচে ৩১ টি ইনিংসে ১ বার নট আউট থেকে, ৩৬.১৬ গড় ও ৯৮.০১ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,০৮৫ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১৪৯, আছে ১ টি সেঞ্চুরি ও ৮ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ১ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,১০৭ টি বল খেলেছেন ও ১৪১ টি বাউন্ডারি এবং ১৯ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৯. মাহেলা জয়বর্ধনে (শ্রীলংকা) – ১৯৯৯ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৪০ টি ম্যাচে ৩৪ টি ইনিংসে ৩ বার নট আউট থেকে, ৩৫.৪৮ গড় ও ৮৫.৯৩ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,১০০ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১১৫ নট আউট, আছে ৪ টি সেঞ্চুরি ও ৫ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ৩ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,২৮০ টি বল খেলেছেন ও ৯৯ টি বাউন্ডারি এবং ১২ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৮. তিলকরত্নে দিলশান (শ্রীলংকা) – ২০০৭ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ২৭ টি ম্যাচে ২৫ টি ইনিংসে ৪ বার নট আউট থেকে, ৫২.৯৫ গড় ও ৯২.৯৭ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,১১২ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১৬১ নট আউট, আছে ৪ টি সেঞ্চুরি ও ৪ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ২ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,১৯৬ টি বল খেলেছেন ও ১২২ টি বাউন্ডারি এবং ৯ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৭. জ্যাক কালিস (দক্ষিণ আফ্রিকা) – ১৯৯৬ থেকে ২০১১ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৩৬ টি ম্যাচে ৩২ টি ইনিংসে ৭ বার নট আউট থেকে, ৪৫.৯২ গড় ও ৭৪.৪০ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,১৪৮ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১২৮ নট আউট, আছে ১ টি সেঞ্চুরি ও ৯ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ২ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,৫৪৩ টি বল খেলেছেন ও ৮৬ টি বাউন্ডারি এবং ১৩ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৬. সনৎ জয়সূর্য (শ্রীলংকা) – ১৯৯২ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৩৮ টি ম্যাচে ৩৭ টি ইনিংসে ৩ বার নট আউট থেকে, ৩৪.২৬ গড় ও ৯০.৬৬ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,১৬৫ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১২০, আছে ৩ টি সেঞ্চুরি ও ৬ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে একবারও ০ রানে আউট হন নি। এই রান করতে মোট ১,২৮৫ টি বল খেলেছেন ও ১২০ টি বাউন্ডারি এবং ২৭ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

৫. এবি ডিভিলিয়ার্স (দক্ষিণ আফ্রিকা) – ২০০৭ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ২৩ টি ম্যাচে ২২ টি ইনিংসে ৩ বার নট আউট থেকে, ৬৩.৫২ গড় ও ১১৭.২৯ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,২০৭ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১৬২ নট আউট, আছে ৪ টি সেঞ্চুরি ও ৬ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ৪ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,০২৯ টি বল খেলেছেন ও ১২১ টি বাউন্ডারি এবং ৩৭ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৪. ব্রায়ান লারা (ওয়েস্ট ইন্ডিজ) – ১৯৯২ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৩৪ টি ম্যাচে ৩৩ টি ইনিংসে ৪ বার নট আউট থেকে, ৪২.২৪ গড় ও ৮৬.২৬ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,২২৫ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১১৬, আছে ২ টি সেঞ্চুরি ও ৭ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ১ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,৪২০ টি বল খেলেছেন ও ১২৪ টি বাউন্ডারি এবং ১৭ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

৩. কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলংকা) – ২০০৩ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৩৭ টি ম্যাচে ৩৫ টি ইনিংসে ৮ বার নট আউট থেকে, ৫৬.৭৪ গড় ও ৮৬.৫৫ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,৫৩২ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১২৪, আছে ৫ টি সেঞ্চুরি ও ৭ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ১ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ১,৭৭০ টি বল খেলেছেন ও ১৪৭ টি বাউন্ডারি এবং ১৪ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

২. রিকি পন্টিং (অস্ট্রেলিয়া) – ১৯৯৬ থেকে ২০১১ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৪৬ টি ম্যাচে ৪২ টি ইনিংসে ৪ বার নট আউট থেকে, ৪৫.৮৬ গড় ও ৭৯.৯৫ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ১,৭৪৩ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১৪০ নট আউট, আছে ৫ টি সেঞ্চুরি ও ৬ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ১ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ২,১৮০ টি বল খেলেছেন ও ১৪৫ টি বাউন্ডারি এবং ৩১ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

১. শচীন তেন্ডুলকর (ভারত) – ১৯৯২ থেকে ২০১১ পর্যন্ত বিশ্বকাপে ৪৫ টি ম্যাচে ৪৪ টি ইনিংসে ৪ বার নট আউট থেকে, ৫৬.৯৫ গড় ও ৮৮.৯৮ স্ট্রাইক রেট নিয়ে মোট ২,২৭৮ রান করেছেন। বিশ্বকাপের আসরে সর্বোচ্চ রান – ১৫২, আছে ৬ টি সেঞ্চুরি ও ১৫ টি হাফ সেঞ্চুরি, তবে ২ বার ০ রানে আউট হয়েছেন। এই রান করতে মোট ২,৫৬০ টি বল খেলেছেন ও ২৪১ টি বাউন্ডারি এবং ২৭ টি ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!