এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিতর্ক বাড়ালেন তৃণমূলের হেভিওয়েট বিধায়ক, দলবদলের জল্পনা কি আরও তীব্র? জল্পনা সর্বত্র

বিতর্ক বাড়ালেন তৃণমূলের হেভিওয়েট বিধায়ক, দলবদলের জল্পনা কি আরও তীব্র? জল্পনা সর্বত্র

লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই বিভিন্ন বিতর্কিত মন্তব্য করে দলকে অস্বস্তিতে ফেলেছেন তিনি। শুরুটা হয়েছিল বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের তাঁর বাড়িতে গিয়ে লুচি আলুরদম খাওয়াকে কেন্দ্র করে। তারপর কখনও ভারত মাতা কি জয়, আবার কখনও বা দলের সম্পর্কে বিভিন্ন বিরূপ মন্তব্য করে তৃণমূল নেত্রীর ঘুম কেড়ে নিতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। আর তারপর থেকেই বিধাননগর পৌরসভার মেয়র তথা তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্তের তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের জল্পনা তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে ফুটে উঠতে শুরু করে।

যদিও বা তিনি ‘তৃণমূলেই আছেন এবং তৃণমূলেই থাকবেন’ বলে জানিয়ে দেন স্পষ্টভাবে। কিন্তু রোজ রোজ নিত্যনৈমিত্তিক ভাবে দল সম্পর্কে তাঁর বিরূপ মন্তব্য যেন কমছে না কিছুতেই। এবার রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বিষোদগার করতে দেখা গেল তৃণমূলের এই বিধায়ককে। সূত্রের খবর, শুক্রবার সল্টলেকের বিদ্যুৎ ভবনের সামনে আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিদ্যুৎ পর্ষদ এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের একটি বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। আর সেখানেই উপস্থিত হন বিধাননগর পৌরসভার মেয়র তথা তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত।

আর এই অনুষ্ঠান থেকেই রীতিমতো নজিরবিহীনভাবে রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী তথা নিজের দলের নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বেপরোয়া মন্তব্য করতে দেখা যায় সব্যসাচী দত্তকে। এদিন এই বিক্ষোভ সমাবেশের মঞ্চ থেকে দলের নেতা তথা বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে সব্যসাচী দত্ত বলেন, “দপ্তরের নাম পাওয়ার। অথচ মন্ত্রীর নিজেরই কোনো পাওয়ার নেই। সারা জীবন শুনেছি তিনি নাকি শ্রমিক আন্দোলন করে নেতা হয়েছেন। আজকে অন্তত মঞ্চে এসে বলতে পারতেন যে তিনি অপারগ, সেটা শুনলে খুশি হতাম। কিন্তু পদের লোভে আর মন্ত্রিত্ব হারানোর ভয়ে তিনি এখানে আসেননি।”

কিন্তু দলের মন্ত্রী তথা নেতা সম্পর্কে তার এহেন মন্তব্য দলকে তো প্রবল অস্বস্তিতে ফেলবে! এমনকি এর জেরে তাঁর তো ডানাও ছাঁটা যেতে পারে! এদিন এই প্রসঙ্গে সেই মঞ্চ থেকেই সব্যসাচী দত্ত বলেন, “কেউ মনে করতেই পারেন, আমি কোনো দলের কর্মী এবং দল বিরোধী কথা বলছি। তাহলে আমার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। আমার কোন আপত্তি নেই।” আর দল সম্পর্কে সব্যসাচী দত্তের এহেন মন্তব্য করায় এবার শুরু হয়েছে জল্পনা। অনেকে বলছেন, সাতপাঁচ ভেবেই শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে এই মন্তব্য করলেন সব্যসাচী দত্ত।

কারণ যদি তাঁর এই মন্তব্য করার পরেও বিন্দুমাত্র ভীতি কাজ করত, তাহলে তিনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলতেন না। উল্টে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে এহেন মন্তব্য করে যদি কেউ চান তাহলে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারেন বলে পাল্টা দলের উদ্দেশ্যেই চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন বিধাননগর পৌরসভার মেয়র তথা তৃণমূল বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত বলেই মত বিশেষজ্ঞদের। সব মিলিয়ে বিভিন্ন সময় নানা মন্তব্য করে দলকে বিপাকে ফেলার পর এবার মন্ত্রী তথা দলের হেভিওয়েট নেতা শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে বিস্ফোরক মন্তব্য করে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল তুলে দিলেন তৃণমূলের সব্যসাচী দত্ত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!