এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > হেভিওয়েট তৃণমূল নেতাকে আইনি নোটিশ পাঠাতে চলেছেন অশোক ভট্টাচার্য – জানুন বিস্তারিত

হেভিওয়েট তৃণমূল নেতাকে আইনি নোটিশ পাঠাতে চলেছেন অশোক ভট্টাচার্য – জানুন বিস্তারিত

হেভিওয়েট তৃণমূল নেতাকে আইনি নোটিশ পাঠাতে চলেছেন অশোক ভট্টাচার্য এমন খবরে এখন তোলপাড় রাজনৈতিক মহল। কিন্তু এমন ঘটনার কারণ কি ?কাকেই বা পাঠাতে চলেছেন নোটিশ তিনি? জানা গেলো শিলিগুড়ি পুরসভার বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকারকে আইনি নোটিস পাঠানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছেন অশোকবাবু।

অশোকবাবুর এহেন সিদ্ধান্তের কারণ হলো সম্প্রতি বিরোধী দলনেতা রঞ্জনবাবু সাংবাদিক সম্মেলন করে পুরসভার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিলেন যে রসভায় ফগিং মেশিন ও অন্যান্য সরঞ্জাম কেনার জন্য এনইউএইচএলএমে ১০০ কোটি টাকা দিয়েছে রাজ্য সরকার। কিন্তু পুরসভা ওই তাকে কোনো মেশিন কেনেনি তাহলে সেই টাকা গেলো কোথায়? আর তা নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর রঞ্জনবাবুর করা অভিযোগকে নস্যাৎ করে এদিন অশোকবাবু দাবি করেন, রাজ্য সরকার এনইউএইচএলএমে ৪ কোটি ৭৬ লক্ষ টাকা পেয়েছি। বিরোধী দলনেতা ওই তথ্য কোথায় পেলেন? তিনি প্রমাণ করুন। আমি উকিলের নোটিস পাঠাচ্ছি।

অন্যদিকে মেয়রের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন তৃণমূল কাউন্সিলার কৃষ্ণ পাল। তিনি দাবি করেছিলেন যে মেয়র বিধায়ক ভাতা ও মেয়র হিসাবে ভাতা দুটোই নিচ্ছেন। বিধানসভার স্পিকারের কাছে তাঁর বিধায়ক পদ খারিজের দাবি জানাবেন। তাই এদিন অশোকবাবু এই নিয়েই জানান যে দুই জায়গা থেকে ভাতা নেওয়া যাবে না কোথায় বলা আছে? সরকারি কোনও নির্দেশিকা কৃষ্ণবাবু দেখাতে পারবেন? তিনি প্রমাণ দিন কোথায় বলা আছে? না পারলে আমি আইনের পথে যাব।

ফলে সব মিলিয়ে এখন আইনি লড়াই বেশ জমে উঠতে চলেছে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিকমহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!