এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বিজেপির উত্থান ঠেকাতে রাজ্যের প্রাক্তন হেভিওয়েট মন্ত্রীর ক্ষমতার পুনঃপ্রতিষ্ঠা শাসকদলে

বিজেপির উত্থান ঠেকাতে রাজ্যের প্রাক্তন হেভিওয়েট মন্ত্রীর ক্ষমতার পুনঃপ্রতিষ্ঠা শাসকদলে

বিগত বাম সরকারের ঘুম কেড়ে নেওয়ার পেছনে সিঙ্গুরের জমি আন্দোলনই রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান লড়াইয়ের একটা আঙ্গিক ছিল। গত 2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পরেই একদা তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত এই সিঙ্গুরে মাস্টারমশাই বনাম ছাত্রের লড়াই শুরু হয়। একদিকে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য এবং অপর দিকে তারই ছাত্র বেচারাম মান্নার অনুগামীদের মধ্যে তীব্র গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে প্রবল চিন্তার ভাঁজ পড়ে তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্বের কপালে।

এদিকে গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর সিঙ্গুর ব্লক তৃণমূলের সভাপতি থেকে বেচারাম মান্নাকে সরিয়ে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে দায়িত্ব দেওয়া হলে ঠিক মতো দলের কর্মসূচিতে বয়সের জন্য অংশগ্রহণ করতে না পারায় বিভিন্ন জায়গায় বিজেপির উত্থান ঘটতে শুরু করে। আর তা উপলব্ধি করতে পেরেই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি পদ থেকে প্রবীণ মাস্টারমশাই তথা তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে সরিয়ে সেখানে তারই ছাত্র বেচারাম মান্নাকে বসানোর সিদ্ধান্ত নেয় তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিকে বেচারাম মান্নাকে ফের দলের মূলস্রোতে ফিরিয়ে আনায় নতুন করে উদ্যম ফিরে পেয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন তিনি। অনেকে বলছেন, ব্লক সভাপতির পদ থেকে বেচারাম মান্নাকে সরিয়ে প্রবীণ তৃণমূল নেতা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে দায়িত্ব দেওয়ার পরেই বেচারাম মান্না ও তার অনুগামীদের সেইভাবে সংগঠনের কাজে দেখা যেত না। কিন্ত রবীন্দ্রনাথবাবুর বয়সের কারণে সংগঠনকে ঠিকমত না সাজানোয় ও এলাকায় বিজেপির উত্থান হওয়ায় আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই বেচারামের উপরই ভরসা রাখল শাসক দল।

এদিকে এদিন নতুন দায়িত্ব পেয়ে বেচারাম মান্না বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একজন সৈনিক। তাই উনি যখন যেভাবে কাজ করার নির্দেশ দেবেন, আমি সেখানেই সেই কাজটা করার চেষ্টা করব।” অন্যদিকে দায়িত্ব থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হল কেন! এই প্রসঙ্গে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে ফোন বা এসএমএস করলেও তিনি কোনো কিছুরই উত্তর দেননি। তবে প্রবল বিরুদ্ধ বেচারাম মান্নাকে নির্বাচনের কাজে যুক্ত করায় রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য এবং তার অনুগামীরা এখন সেই ভাবে সংগঠনের কাজে যুক্ত থাকেন কিনা তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন অনেকেই।

এদিকে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের রায় তাদের পক্ষেই যাবে বলে জানান বিজেপির ওবিসি মোর্চার জেলা সভাপতি অমিত কর্মকার। সব মিলিয়ে বয়সের ভারের কারণ দেখিয়ে রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে ব্লক তৃণমূল সভাপতির পদ থেকে সরিয়ে সেখানে তার বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর নেতা বেচারাম মান্নাকে নিয়ে এসে সংগঠনকে শক্তিশালী করার কাজে তৎপর হল তৃনমূল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!