এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > হেভিওয়েট মন্ত্রীকে দিয়েও ঠেকানো গেল না দলবদল, শক্তিশালী আবার গেরুয়া শিবির

হেভিওয়েট মন্ত্রীকে দিয়েও ঠেকানো গেল না দলবদল, শক্তিশালী আবার গেরুয়া শিবির

লোকসভা ভোটের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে শাসক দল তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের হিড়িক পড়ে যায়। আর এই দলবদল আটকাতে তৃণমূলের অনেক হেভিওয়েট নেতা, মন্ত্রীকে স্বয়ং দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আসরে নামালেও মুকুল ম্যাজিকে তা ক্রমশ ক্ষীণ হতে শুরু করে।

বস্তুত এবারের লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের ভরাডুবি হয়েছে। সেখানে একটি আসনও শাসক দল নিজেদের দখলে রাখতে পারেনি। সেই মতো ফলাফল পর্যালোচনা বৈঠকে উত্তরবঙ্গের প্রতি বাড়তি নজর দেওয়ার কথা বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেইমত উত্তরবঙ্গের এই ধ্বস রুখতে জলপাইগুড়ি জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস সেই উত্তরবঙ্গের মাটিতে পা রাখেন।

বৃহস্পতিবার ময়নাগুড়ি ব্লকের তৃণমূলের বিপর্যয় ঠেকাতে তিনি সেই এলাকায় যাওয়ার আগেই ফের শাসকদলের অন্দরে ভাঙ্গনের ঘটনা ঘটল। সূত্রের খবর, এদিন অরূপ বিশ্বাস আসার আগেই ময়নাগুড়ি ব্লকের সাপটিবাড়ী 2 গ্রাম পঞ্চায়েতের বর্তমান প্রধান নীলিমা অধিকারী সহ মোট 7 জন সদস্য বিজেপিতে যোগ দেন। যার ফলে এই গ্রাম পঞ্চায়েতের বোর্ড তৃণমূলের হাতছাড়া হল। কিন্তু কেন তারা দল ছাড়লেন?

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সাপটিবাড়ি 2 গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান নীলিমা অধিকারী বলেন, “তৃণমূলের দলীয় কোন্দল এবং স্বজনপোষণের বিরুদ্ধেই আমরা বিজেপিতে যোগ দিয়েছি। আগামী দিনের নরেন্দ্র মোদির কাজের সুফল সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতেই বিজেপির দলীয় শৃঙ্খলা মেনে আমরা কাজ করব।”

কিন্তু মন্ত্রীকে উত্তরবঙ্গের ভাঙ্গন রোধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঠালেও যেভাবে মন্ত্রী আসার আগেই ময়নাগুড়ি ব্লকের সাপটিবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান সহ সিংহভাগ সদস্য বিজেপিতে যোগদান করলেন, তাতে উত্তরবঙ্গে যে বিজেপির দাপট আরও বাড়তে শুরু করেছে সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা‌। এখন উত্তরবঙ্গে তৃণমূলের এই ক্রমাগত ভাঙ্গন রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঠিক কী স্ট্র্যাটেজি নেন, সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!