এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > হেভিওয়েট মন্ত্রীর নামে ‘তৃণমূলকে শেষ করার কারিগর’ ফ্লেক্স – তীব্র চাঞ্চল্য জেলায়

হেভিওয়েট মন্ত্রীর নামে ‘তৃণমূলকে শেষ করার কারিগর’ ফ্লেক্স – তীব্র চাঞ্চল্য জেলায়

এবার কোচবিহার জেলা পরিষদের সভাধিপতি বা সহকারি সভাধিপতি নির্বাচন ঘিরে চরম উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। জানা যায়; গত শুক্রবার বোর্ড গঠনের পর একটি ফ্লেক্স টাঙিয়ে কোচবিহার জেলা তৃনমূলের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এবং বিধায়ক উদয়ন গুহর নামে অপমানজনক মন্তব্য করা হয়। হরিশ পাল চৌপথির এক লাইট পোস্টে উদয়ন গুহর ছবি টাঙিয়ে সেখানে লেখা হয়, “আমি বাঘের বাচ্চা। তৃনমূলে এসেছি দলকে ধ্বংস করতে।”

অন্যদিকে তৃনমূল শেষ করার কারীগর হিসাবে রবীন্দ্রনাথ ঘোষের ছবিতেও লেখা হয়েছে। কিন্তু কারা ঘটাল এমন ঘটনা? জানা গেছে, গত শুক্রবার বোর্ড গঠনের সময় সুকটাবাড়ি থেকে কিছু তৃনমূল সমর্থক সেইখানে অংশ নিয়েছিলেন। এরপর সেইখানে তারা চরম উত্তেজনা ও বিদ্রুপ মন্তব্য করতে থাকে। আর তাদের মধ্যে কেউ যে এই ঘটনা ঘটিয়েছে এবং তা যে কোচবিহার জেলা তৃনমূল সভাপতির বিরুদ্ধ গোষ্টীরই কাজ তা বুঝতে বাকি নেই কারোরই। এদিকে এই ঘটনায় গত শুক্রবার

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

জেলা পরিষদের সামনে যে বিক্ষোভ হয়েছিল তার ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেছে পুলিশ। কয়েকজনের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রনোদিত মামলাও করা হয়েছে। তবে শুধু জেলা নয়, ফ্লেস্কে রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে অপমানজনক মন্তব্য করায় গোয়েন্দা বিভাগও নড়েচড়ে বসেছে। কিন্তু এই ব্যাপারে দলের দৃষ্টিভঙ্গী কি? এদিন সেই প্রশ্নের উত্তরে কোচবিহার জেলা তৃনমূল সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “যারা দলকে ভালোবাসে না, শুধুই ভাঙিয়ে খায় তারাই একাজ করেছে। আমি এইব্যাপারে রাজ্য নেতৃত্বের কাছে লিখিত অভিযোগ জানাব।” তবে জেলা তৃনমূল সভাপতি যার কাছেই অভিযোগ জানান না কেন! কোচবিহার জেলায় তৃনমূলের এই গোষ্টীকোন্দল ফের প্রকাশ্যে আসায় বিরোধীরা এক নতুন অস্ত্র পেল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!