এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজীব কুমার-সিবিআই এর টানাপোড়েনের মাঝেই রাজীবকে নিয়ে বড়সড় আশঙ্কা প্রকাশ হেভিওয়েট নেতার

রাজীব কুমার-সিবিআই এর টানাপোড়েনের মাঝেই রাজীবকে নিয়ে বড়সড় আশঙ্কা প্রকাশ হেভিওয়েট নেতার


কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার বনাম সিবিআইয়ের লুকোচুরি খেলা চলছে। আদালতের সবুজ সংকেত পেয়ে এখন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা আদাজল খেয়ে রাজীব কুমারকে ধরার জন্য ময়দানে নেমে পড়েছেন। আর এরই মধ্যে এবার সেই রাজীব কুমারকে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গেল প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্রকে।

সূত্রের খবর, এদিন বীরভূমের সিউড়িতে দলের এক সভায় রয়েছেন সোমেন মিত্র বলেন, “২০১৩ সালে সারদা কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসলে তার তদন্তের জন্য গঠন করা হয় স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম। সেই টিমের মাথা করা হয় বিধাননগর কমিশনারেটের তত্কালীন প্রধান রাজীব কুমারকে।রাজীব কুমারকে হত্যাও করা হতে পারে।” আর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির এহেন মন্তব্যকে ঘিরেই এবার রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জোর জল্পনা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে সারদা চিটফান্ডের কর্ণধার সুদীপ্ত সেনকে জম্মু ও কাশ্মীরের সোনমার্গ থেকে গ্রেফতার করে নিয়ে আসে রাজীব কুমারের টিম। কিন্তু ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে সারদার তদন্তভার চলে যায় সিবিআইয়ের হাতে। তবে আদালতের নির্দেশে সারদার সমস্ত নথি সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিতে হয় রাজীব কুমারকে। অন্যদিকে সারদার নথি সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিলেও বহু গুরুত্বপূর্ণ নথি তিনি নষ্ট করে ফেলেছেন বলে অভিযোগ ওঠে সেই রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে সোমেন মিত্র বলেন, “সারদা মামলায় রাজ্য সরকারের বহু প্রভাশালী নেতা জেল খেটেছেন। রাজীব কুমারকে বাঁচাতে ধর্মতলা ধরনায় বসেছিলেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী। তিনি ধরা পড়লে দলের অনেক রথি মহারথির রাজনৈতিক জীবনই শেষ হয়ে যাবে এবং সরকারের অস্তিত্ব নিয়েই প্রশ্ন দেখা দেবে। এখন সিবিআই যেভাবে এগোচ্ছে তাতে ওকে মেরে ফেলা ছাড়া আর কোনও রাস্তা নেই। সেই জন্যই আমাদের ভয় হচ্ছে, ওকে মেরে না দেয়।”

আর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির এই ধরনের মন্তব্যের পরই তোলপাড় রাজনৈতিক মহল ।তাদের প্রশ্ন, তাহলে কী পরোক্ষে এই ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই কাঠগড়ায় তুললেন সোমেন মিত্র! বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন, বিরোধীরা বার বার দাবি করেছেন যে রাজীব কুমারকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই লুকিয়ে রেখেছে  এবার সিবিআই যখন সেই রাজীব কুমারকে খুঁজছে, ঠিক তখনই তৃণমূল সারদা-কাণ্ড থেকে বাঁচতে সেই রাজীব কুমারকে হত্যা করতে পারে বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করে সোমেন মিত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই কাঠগড়ায় তুললেন।যদিও এই নিয়ে এখনো পর্যন্ত তৃণমূলের তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!