এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > রাজ্য-রাজনীতিতে চমক! ৪২ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে দল ছাড়লেন প্রাক্তন বাম সাংসদ

রাজ্য-রাজনীতিতে চমক! ৪২ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে দল ছাড়লেন প্রাক্তন বাম সাংসদ

জল্পনাটা চলছিলই, আমরাই জানিয়েছিলাম পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে যে পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হলেই দীর্ঘদিনের বাম সাংসদ মইনুল হাসান দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করতে পারেন এবং আগামী লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের শাসকদলের তরফে তাঁকে মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করা হতে পারে। জল্পনার দ্বিতীয় ও তৃতীয় অংশটি কতদূর সত্যি হবে তা আপাতত ভবিষ্যতের গর্ভে – কিন্তু আমাদের খবর অনুযায়ী প্রথম অংশটি একেবারে মিলে গেল। দীর্ঘ ৪২ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে দল ছাড়লেন প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ মইনুল হাসান।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

দল ছাড়ার কারণ হিসাবে তিনি জানিয়েছেন, নীতিগত কারণেই দল ছাড়ছি। বিজেপিকে ফ্যাসিবাদী বলতে রাজি নয় সিপিএম। অথচ বিজেপির বিরুদ্ধে দেশজুড়ে লড়াই চালাতে হলে ঐক্যবদ্ধ হয়েই লড়তে হবে। তৃণমূল এবং বিজেপিকে একসূত্রে বাঁধলে আখেরে লাভবান হবে বিজেপিই। ক্ষতিগ্রস্ত হবে তাদের বিরুদ্ধে লড়াই। এরাজ্যে তৃণমূলের সঙ্গে সিপিএম-এর যে সমস্যা আছে তা অন্যভাবেও মেটানো যেতে পারে। কিন্তু বিজেপিকে রুখতে হবে একজোট হয়েই সবাইকে লড়াই করতে হবে। না হলে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে লড়তে গিয়ে যেভাবে বিজেপির সুবিধা হয়েছিল তাই হবে। আমাদের দেওয়া খবরের দ্বিতীয় ও তৃতীয় অংশের যে সত্যতা আছে এই প্রসঙ্গে সিপিএম সাংসদ মহম্মদ সেলিমের বক্তব্যে। তিনি জানিয়েছেন, রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়ার পরই তিনি দল ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। তৃণমূলেই যোগ দেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে মইনুলের। তৃণমূলের শহিদ দিবস, ২১ জুলাইয়ের আগে তাই এই পদক্ষেপ করলেন মইনুল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!