এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপিকে টেক্কা দিয়ে ‘তুরুপের তাস’ করতে গিয়ে এই হেভিওয়েটকে নিয়ে বড় ধাক্কা বিরোধী শিবিরে

বিজেপিকে টেক্কা দিয়ে ‘তুরুপের তাস’ করতে গিয়ে এই হেভিওয়েটকে নিয়ে বড় ধাক্কা বিরোধী শিবিরে

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারকে কেন্দ্র থেকে বিতাড়নের জন্য চেষ্টার কসুর ছাড়ছে না বিরোধীরা। কংগ্রেস বা আঞ্চলিক দলগুলির দাবী, জনসাধারণের সমর্থন সরে গেছে বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকারের পাশ থেকে – তবুও সেই বিজেপিকে হারাতে কোথাও দীর্ঘদিনের বৈরিতা ভুলে দুই যুযুধান শিবির হাত মেলাচ্ছে, তো কোথাও হেভিওয়েট নেতাকে দলে নিয়ে চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। আর এই পরিস্থিতিতে কিছুদিন আগেই খোদ নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহের গড় গুজরাটে বিজেপির ঘুম ওড়াতে অনেক ঢাক-ঢোল পিটিয়ে দলে নিয়েছিল পতিদের আন্দোলনের অন্যতম মুখ হার্দিক প্যাটেলকে।

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও খুবই প্রিয় এই পতিদের তরুণ নেতা। ইতিমধ্যেই নবান্নে এসে তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গে একান্তে বৈঠকও করে গেছেন। সেই তরুণ হার্দিক প্যাটেলকে সপ্তাহ দুয়েক আগেই কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর উপস্থিতিতে দলে নিয়েই কংগ্রেস ঘোষণা করেছিল আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে গুজরাতেই রুখে দিতে তুরুপের তাস হতে চলেছেন নাকি এই তরুণ তুর্কি। প্রাথমিকভাবে, শোনা গিয়েছিল স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে হার্দিক প্যাটেল উত্তরপ্রদেশের বারাণসী থেকেই নির্বাচনে লড়বেন। কিন্তু, পরবর্তীকালে জানা যায়, তিনি লড়তে চলেছেন গুজরাটের জামনগর কেন্দ্র থেকেই।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কংগ্রেস শিবির তো বটেই সমগ্র বিরোধী শিবিরের আশা ছিল, গুজরাটের জামনগর থেকে হার্দিক প্যাটেলকে প্রার্থী করা হলে ওই কেন্দ্রটি তো বটেই, সমগ্র গুজরাতেই নাকি বেশ বড়সড় বিজেপি-বিরোধী হাওয়া উঠবে। বিশেষ করে পতিদের সমাজের মধ্যে হার্দিক প্যাটেলের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে আরও বেশ কিছু আসনের দখল নেবে হাত শিবির, যা নিশ্চিতভাবেই প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দ্বিতীয়বারের জন্য কেন্দ্রে ফেরার পথ দুর্গম করে দেবে নরেন্দ্র মোদির জন্য। কিন্তু, আদালতের এক নির্দেশিকাতে আজ সেই আশায় বড়সড় জল পরে গেল বিরোধী শিবিরের। নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে হার্দিক প্যাটেলকে ‘তুরুপের তাস’ হিসাবে ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত এখন না ‘ব্যুমেরাং’ হয়ে যায় বিরোধী শিবিরের কাছে।

২০১৫ সালে পতিদার আন্দোলনের সময় গুজরাটের ভিসানগরে দাঙ্গার মামলায় অভিযুক্ত ছিলেন হার্দিক প্যাটেল। গত বছর জুলাইয়ে তাঁকে দু’বছরের সাজা শোনায় আদালত। তবে ওই বছরেরই আগস্ট মাসে গুজরাট হাইকোর্ট হার্দিককে জামিন দিলেও সাজা মকুব করেনি। আর ভোটে প্রার্থী হওয়ার নয়া নিয়ম অনুসারে, সাজা পেয়েছেন এমন কেউ ভোটে লড়তে পারেন না – সাজার উপর স্থগিতাদেশ এলে তবেই ভোটে লড়া সম্ভব। আর তাই, গত ৮ মার্চ নিজের সাজার উপর স্থগিতাদেশ চেয়েছিলেন হার্দিক প্যাটেল। গতকাল সেই মামলার শুনানিতে গুজরাট সরকার এর তীব্র বিরোধিতা করে। আর শুক্রবার তাঁর সেই আবেদন খারিজ করে আদালত জানায় সাজার উপর স্থগিতাদেশ দেওয়া হবে না। ফলে, সাজার উপর স্থগিতাদেশ না পাওয়ায় আসন্ন নির্বাচনে লড়তে পারবেন না পতিদার আন্দোলনের নেতা হার্দিক প্যাটেল। রাজনৈতিক মহলের ধারণা, আদালতের এই নির্দেশকে সামনে রেখে এবার বিরোধীদের তীব্র আক্রমনের পথে হাঁটতে চলেছে গেরুয়া শিবির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!