এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > হেভিওয়েট নেতার বিরুদ্ধে কাটমানির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ তৃণমূলের! জোর চাঞ্চল্য!

হেভিওয়েট নেতার বিরুদ্ধে কাটমানির অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ তৃণমূলের! জোর চাঞ্চল্য!


পৌরসভা নির্বাচনের আগে এখন প্রতিটি রাজনৈতিক দলই একে অপরকে বিপাকে ফেলতে তৎপর হয়ে উঠেছে। রাজ্যের বেশিরভাগ পৌরসভা তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে থাকায়, সেই সমস্ত পৌরসভায় তৃণমূল কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিভিন্ন জায়গায় সরব হতে দেখা যাচ্ছে বিরোধী দলগুলোকে। যা নিঃসন্দেহে পৌরসভা নির্বাচনের আগে অস্বস্থিতে ফেলেছে তৃণমূলকে। কিন্তু এবার উলটপুরাণ ঘটনা ঘটল এরাজ্যে। এবার এক কংগ্রেস কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ঘর তৈরিতে কাটমানি নেওয়ার অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ দেখাল তৃণমূল কংগ্রেস।

সূত্রের খবর, বুধবার দুপুরে বসিরহাট পৌরসভার 7 নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলর পারমিতা মজুমদারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলে সোচ্চার হয়েছে রাজ্যের শাসক দল। জানা যায়, এই ওয়ার্ডে গৃহনির্মান প্রকল্পে প্রথম পর্যায়ে 32 টি ঘর তৈরি হওয়ার পরে, 88 টি ঘরের কাজ শুরু হয়েছে। যেখানে প্রতিটি উপভোক্তার তিন লক্ষ 85 হাজার টাকা পাওয়ার কথা। কিন্তু অনেকেরই অভিযোগ, ব্যাংকের পাসবুক এবং চেক নিয়ে কাউন্সিলর নিজের ইচ্ছামত টাকা তুলে নিচ্ছেন।

এমনকি পছন্দের ঠিকাদার দিয়ে নিম্নমানের ঘর তৈরি করার অভিযোগ রয়েছে সেই কংগ্রেস কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে। আর সাধারণ মানুষের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে এখন পৌরসভা নির্বাচনের আগে এই সাত নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলরকে বিপাকে ফেলতে উপভোক্তাদের নিয়ে তার বিরুদ্ধে সরব হল রাজ্যের শাসক দল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে কৌশিক দত্ত, বঙ্কিম মুখোপাধ্যায়ের মত তৃণমূল নেতারা বলেন, “সাত নম্বর ওয়ার্ডে গরীব মানুষের ঘর তৈরি নিয়ে দুর্নীতি করেছেন কংগ্রেস কাউন্সিলার। ওয়ার্ডের বিভিন্ন জায়গায় রাস্তার উন্নতি হয়নি। উন্নয়নের জন্য কত টাকা এসেছে, তা সকলকে জানাতে হবে।”

একইভাবে বোর্ড তৃণমূলের দখলে থাকায় এবং সামনে পৌরসভা নির্বাচন থাকায় এই কংগ্রেস কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়ে তদন্তের আশ্বাস দিয়েছেন তৃণমূল পরিচালিত পৌরসভার চেয়ারম্যান তপন সরকার। তবে এই ব্যাপারে তার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কংগ্রেস কাউন্সিলর পারমিতা মজুমদার।

এদিন তিনি বলেন, “কোনো উপভোক্তার থেকে পাসবুক, চেকবই নেওয়া হয়নি। তৃণমূল মিথ্যা প্রচার করছে।” একই অভিযোগ করে, তাদের কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন জেলা কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি অমিত মজুমদার। সব মিলিয়ে যখন বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূলের কাউন্সিলরদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ উঠছে, ঠিক তখনই বসিরহাট পৌরসভায় কংগ্রেসের কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে রীতিমতো সরব হল তৃণমূল কংগ্রেস।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!