এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > জনমত ধরে রাখতে প্রচারে নামলেন হেভিওয়েট চেয়ারম্যান! দেখা নেই বিরোধীদের!

জনমত ধরে রাখতে প্রচারে নামলেন হেভিওয়েট চেয়ারম্যান! দেখা নেই বিরোধীদের!

আগামী বিধানসভার আগে এখন রাজ্যের মেয়াদোত্তীর্ণ পৌরসভাগুলো দখল করাই প্রধান লক্ষ্য তৃনমূলের কাছে। উত্তরবঙ্গে গত লোকসভায় তৃণমূলের ভরাডুবি হলেও, এখন ঘাসফুল শিবির চাইছে, পৌরসভায় বিজেপিকে একদম কুপোকাত করতে। কেননা গত লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গের আটটি কেন্দ্রের মধ্যে সাতটিতেই ফুটে গিয়েছিল পদ্মফুল। তবে পদ্মের বাড়বাড়ন্ত যাতে পৌর নির্বাচনে না দেখা যায়, তার জন্য এবার নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার আগেই ময়দানে নামতে দেখা গেল দিনহাটা পৌরসভার তৃণমূলের চেয়ারম্যান উদয়ন গুহকে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই দিনহাটা পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডগুলিতে জনসংযোগ শুরু করে দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, সাধারণ মানুষের অভাব, অভিযোগ শুনে তা দ্রুত সমাধানের আশ্বাস দিতেও শোনা গেছে দিনহাটার এই তৃণমূল বিধায়ককে। জানা গেছে, গত বুধবার দিনহাটার এক নম্বর ওয়ার্ডে দিনভর ঘুরতে দেখা যায় উদয়নবাবুকে। যেখানে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়ে এনআরসি এবং সিএএর কুফল সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করেন তিনি। তিনি বলেন, “ওয়ার্ডে গিয়ে বাড়ি বাড়ি এনআরসি ও এনপিআরের বিরুদ্ধে প্রচার করছি। কর্মীসভাও করছি। আমরা সারা বছর মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক রাখি। সেই প্রচারই চলছে। সামনে ভোট বা ভোট এসেছে বলে নয়।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গত লোকসভা তৃণমূলের যে পরিস্থিতি হয়েছিল, তা থেকে অবস্থার পরিবর্তন করতে এখন এনআরসিকে হাতিয়ার করে বিজেপির বিরোধিতা শুরু করছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর তাই নেত্রী এবং দলের নির্দেশ মত পৌরসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণার অনেক আগে থেকেই এবার এই ইস্যুতে বিজেপির বিরোধিতা করে পৌরসভা নির্বাচনেরই প্রচার শুরু করে দিলেন দিনহাটার তৃণমূলের চেয়ারম্যান উদয়ন গুহ বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

কিন্তু তৃণমূলের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে প্রচার শুরু করে দেওয়া হলেও, সেভাবে দেখা যাচ্ছে না বিরোধী কোনো রাজনৈতিক দলকে। তাহলে কি এখানে অস্তিত্ব সংকটে পড়েছেন বিরোধীরা! যার কারণে তৃণমূলের বিধায়ক তথা দিনহাটা পৌরসভার চেয়ারম্যান লাগাতার প্রচার করলেও, তাদেরকে সেভাবে প্রচারে নামতে দেখা যাচ্ছে না! এদিন এই প্রসঙ্গে ফরওয়ার্ড ব্লকের যুবলীগের রাজ্য সভাপতি আব্দুর রউফ বলেন, “গত নির্বাচনে শহরের মানুষ শান্তির জন্য আমাদের ভোট দিয়ে জয়ী করেছিল। এবারেও শহরের মানুষ আমাদের ভোট দিয়ে পুনরায় জয়ী করবেন। তাই যে যতই আগে থেকে প্রচারে নামুক, কোনো লাভ হবে না।” অন্যদিকে এই ব্যাপারে বিজেপি রাজ্য কমিটির সদস্য দীপ্তিমান সেনগুপ্ত বলেন, “গত লোকসভা ভোটে শহরের মানুষ কি চায়, তার সিদ্ধান্ত ইভিএমে জানিয়ে দিয়েছে।”

বস্তুত, গত লোকসভা নির্বাচনে এই দিনহাটা পৌরসভার সিংহভাগ ওয়ার্ডেই লিড পেয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তাই বিজেপি আশাবাদী, এবারে পৌরসভা নির্বাচনেও তারা ভালো ফল করবে। অন্যদিকে অতীতে এখানকার পৌরসভা নির্বাচনে ফরওয়ার্ড ব্লক ভালো ফল করায় তারাও আশাবাদী যে, এবার তারা এখানে দাগ কাটতে পারবে। কিন্তু যে কোনো নির্বাচনে প্রচার সব সময় শেষ কথা বলে।

তাই সেদিক থেকে যেভাবে ময়দানে নেমে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন তৃনমূলের চেয়ারম্যান উদয়ন গুহ, তাতে ভোটবাক্সে কি হবে, তা বলা না গেলেও, প্রচারে তৃণমূল যে অনেকটাই এগিয়ে, সেই সম্পর্কে নিশ্চিত বিশ্লেষকরা। তবে প্রচারে তৃণমূল এগিয়ে থাকলেও, তার প্রভাব এখন ভোটবাক্স কতটা পরে, মানুষ কোন দিকে তাদের সমর্থন দেন, তার দিকেই নজর সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!