এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > হরিয়ানায় পরিস্থিতি কঠিন হলেও যোগ্য যোগ্য সেনাপতির মতো সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন অমিত শাহ

হরিয়ানায় পরিস্থিতি কঠিন হলেও যোগ্য যোগ্য সেনাপতির মতো সামনে থেকে নেতৃত্ব দিলেন অমিত শাহ



দীপাবলি আসার আগেই গত 21 অক্টোবর মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় হয়ে গেল বিধানসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনকে ঘিরে কেন্দ্রীয় শাসক বিজেপি তাঁদের নির্বাচনী প্রচার লোকসভা ভোটের পরেই শুরু করে দিয়েছিল। ভোট মিটতেই বুথ ফেরত সমীক্ষায় দেখা যায়, বিজেপি অন্যান্য বিরোধী দলের থেকে বহুগুণে এগিয়ে রয়েছে মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায়। কিন্তু আচমকাই বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল উল্টে গেল হরিয়ানায়। রীতিমতো সংকটজনক অবস্হা হতে চলেছে বিজেপির। একই অবস্থা মহারাষ্ট্রেও। রীতিমতো হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে বিজেপি ও কংগ্রেসের মধ্যে।

বুথ ফেরত সমীক্ষার ফল একেবারে উল্টো হাওয়ায় বইল এদিন হরিয়ানায়। বিজেপির ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলতে চলেছে কংগ্রেস। জনতা পার্টি অর্থাৎ জেজেপি রীতিমতো চমকপ্রদ ফলের দিকে এগোচ্ছে। পুরো পরিস্থিতি নিয়ে অত্যন্ত চাপে পড়েছে পদ্ম শিবির। গেরুয়া শিবিরের ক্ষোভ বাড়ছে। সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার হরিয়ানার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর লাল খট্টরকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে দেখা করার জন্য তাঁকে জরুরি তলব করেছেন অমিত শাহ। দিল্লিতে খট্টরের ওপর চরম ক্ষুব্ধ দল।

অমিত শাহের এদিন ইন্দো টিবেটান বর্ডার পুলিশের একটি অনুষ্ঠানে পুনঃনির্ধারিত সূচী অনুযায়ী থাকার কথা ছিল। কিন্তু দুই রাজ্যের ফলাফলের প্রাথমিক ট্রেন্ড ফলো করলে দেখা যাচ্ছে, মহারাষ্ট্র বা হরিয়ানায় কোথাও বিজেপি সুবিধাজনক জায়গায় নেই। রীতিমতো হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে বিজেপি ও কংগ্রেসের মধ্যে। হরিয়ানাতে প্রাথমিকভাবে 90 টি আসনের মধ্যে 40 টি আসনে বিজেপি এগিয়ে রয়েছে। আর ম্যাজিক ফিগার 46।

অন্যদিকে, কংগ্রেস যে দিকে এগোচ্ছে তাতে হরিয়ানায় ত্রিশঙ্কু সরকার হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। হরিয়ানায় কংগ্রেসের মধ্যে তৎপরতা শুরু হয়েছে জোট সরকার গড়ার জন্য। যদিও এদিন দুপুর পর্যন্ত হরিয়ানায় বৃহত্তম দল হিসেবে প্রথম স্থানে আছে বিজেপি। তবে আশা, শেষবেলায় খেলা উল্টেও যেতে পারে। তাই তড়িঘড়ি খট্টরকে ডেকে পাঠিয়ে অবস্থার মোকাবিলা করতে চাইছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

ভোটের শুরু থেকেই ফলাফলের আগে পর্যন্ত বুথ ফেরত সমীক্ষা এবং জনমত সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছিল, বিজেপি নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে চলেছে। কিন্তু গণনা শুরু হওয়ার পর থেকেই এদিন সকাল থেকে ধীরে ধীরে ছবি পরিস্কার হয়। প্রাথমিকভাবে ট্রেন্ড অনুযায়ী, 75 টি আসনে পৌঁছানো তো দূর অস্ত! ম্যাজিক ফিগার 46 এ পৌঁছাতে পারবে কিনা সন্দেহ বিজেপির। সূত্রের খবর, এদিন খট্টরকে দুবার ফোন করেছিলেন অমিত শাহ। দুপুরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে খট্টরের সাক্ষাৎকার ঠিক হয়েছে।

হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রের প্রাথমিক ফলাফল অনুযায়ী খুশির জোয়ার বিরোধীদলে। লোকসভা ভোট পরবর্তী সময়ে বিজেপিকে পেছনে ফেলাটা একটা বড় চ্যালেঞ্জ ছিল বিরোধীদের। সে ক্ষেত্রে প্রাথমিক ট্রেন্ড অনুযায়ী, তাঁরা অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে বলে খবর।

অন্যদিকে, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বুথ ফেরত সমীক্ষা, জনমত সমীক্ষার উপর কখনো ভোটের রেজাল্ট নির্ভর করে না। তবে সম্পূর্ণ খবর এখনো পাওয়া যায়নি। প্রাথমিক ট্রেন্ড অনুযায়ী সবটা নির্ধারিত হয়েছে এখনো পর্যন্ত। তবে শেষ মুহূর্তের খবর পর্যন্ত সবারই অপেক্ষা করা উচিত। কারণ, যেকোনো মুহূর্তে খেলা বদলে যেতে পারে। আপাতত হরিয়ানা ও মহারাষ্ট্রের দিকে সজাগ নজর রেখেছে দেশের বিশিষ্ট রাজনৈতিক দলগুলি।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!