এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > আবার অমানবিক রাজ্য সরকার, বেতনের দাবিতে আন্দোলন করে গ্রেপ্তার ১৫০০ কলেজের অতিথি শিক্ষক!

আবার অমানবিক রাজ্য সরকার, বেতনের দাবিতে আন্দোলন করে গ্রেপ্তার ১৫০০ কলেজের অতিথি শিক্ষক!

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকারের আমলে বেতন বঞ্চনা রাজ্যের সর্বত্র আছড়ে পড়ছে! বকেয়া ডিএ ও পে-কমিশন নিয়ে আন্দোলন করতে করতে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের শুনতে হয়েছে ‘ঘেউ ঘেউ করবেন না’! পিআরটি স্কেল নিয়ে আন্দোলন করে স্কুল শিক্ষকদের বদলি-সন্ত্রাসের শিকার হতে হয়েছে বলে অভিযোগ! রাজ্যের শিক্ষিত বেকার সমাজের অভিযোগ – রাজ্য থেকে সরকারি চাকরিই উঠিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনায় আছেন যেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর এবার সেই বঞ্চনার তালিকায় আন্দোলন করে নিগৃহীত হওয়ার তালিকায় নাম লেখালেন কলেজের অতিথি শিক্ষক বা গেস্ট লেকচারাররা। বর্তমানে রাজ্যে স্থায়ী কলেজ শিক্ষকের সংখ্যা প্রায় ৮ হাজার, যেখানে অতিথি শিক্ষকের সংখ্যা প্রায় ১৩ হাজার। বাম আমলে যেসব অতিথি শিক্ষক নিযুক্ত হয়েছিলেন, তাঁদের তৎকালীন সরকার মাসিক ১৮ হাজার টাকা ভাতার ব্যবস্থা করেন। কিন্তু, বর্তমান রাজ্য সরকার, ক্লাস পিছু শিক্ষকদের ১০০ থেকে ১৫০ টাকার বেশি ভাতা দেয় না। কিছু শিক্ষক আছেন, যাঁদের মাসিক ভাতা দেওয়া হয় – কিন্তু তার পরিমানও দু থেকে আড়াই হাজারের বেশি নয়!

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে, সেইসব শিক্ষকদের আবার যেসব মাসে কলেজে ছুটি থাকে, সেই সব মাসে কপালে জোটে লবডঙ্কা! যাঁদের সমাজ তৈরির কারিগর বা সমাজের মেরুদন্ড বলা হয়, তাঁদের এই চূড়ান্ত আর্থিক বঞ্চনাকে একপ্রকার অপমানের শামিল বলেই মনে করা হচ্ছে সেইসব শিক্ষকদের তরফে। আর তাই, এই বঞ্চনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে ও আর্থিক সুরাহার ব্যবস্থা করতে আগাম অনুমতি নিয়ে কলকাতার হাজরা মোড়ে আন্দোলনে নামেন রাজ্যের বিভিন্ন কলেজের অতিথি শিক্ষকরা। কিন্তু, সেই শান্তিপূর্ণ আন্দোলনকে ছত্রভঙ্গ করতে, বিনা প্ররোচনায় পুলিশ প্রায় দেড় হাজার জন অতিথি শিক্ষক আজ গ্রেপ্তার করেছে।

আন্দোলনকারীদের আরও অভিযোগ, পুলিশ শুধু গ্রেপ্তার করেই থামে নি, তাঁদের সঙ্গে কোনোরকম আলোচনা না করেই গ্রেপ্তার করা শিক্ষকদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধারায় মামলা সাজানোর কথা বলছেন। সবমিলিয়ে রীতিমত ক্ষুব্ধ, আর্থিকভাবে চূড়ান্তভাবে বঞ্চিত কলেজের এই অতিথি শিক্ষকরা। রাজ্য সরকারের এই অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে, পরবর্তী পদক্ষেপ হিসাবে কলকাতা প্রেস ক্লাবের বাইরে আমরণ অনশন শুরুর পরিকল্পনা করছেন তাঁরা। সবমিলিয়ে রীতিমত অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি – লোকসভা নির্বাচনে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের চূড়ান্ত অনাস্থা দেখে রাজ্যের শাসকদল আরও বেশি ‘প্রতিহিংসাপরায়ণ’ হয়ে গেছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। অতিথি শিক্ষকদের এই আন্দোলনে এইভাবে গ্রেপ্তারির পদক্ষেপে রীতিমত ছিছিক্কার শুরু হয়ে গেছে রাজ্যের সুশীল সমাজের মধ্যে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!