এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রাজ্য সরকারের প্রস্তাবিত 60 হাজার গ্রুপ ডি পদে নিয়োগ কি শীঘ্রই? বোর্ডের নির্দেশিকায় বাড়ছে আশার আলো

রাজ্য সরকারের প্রস্তাবিত 60 হাজার গ্রুপ ডি পদে নিয়োগ কি শীঘ্রই? বোর্ডের নির্দেশিকায় বাড়ছে আশার আলো

গ্রুপ ডি র 60 হাজার কর্মী নিয়োগের জন্য রাজ্যে তৈরি হয়েছিল গ্রুপ ডি রিক্রুটমেন্ট বোর্ড। 2016 র 1 জানুয়ারি থেকে এই বোর্ড নিজেদের কাজ শুরু করলেও তিন বছর যেতে না যেতেই দেখা দেয় সমস্যা। কিন্তু এখনও পর্যন্ত সেই নিয়োগের ব্যাপারে কোনরূপ পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ একাংশের।

এমনকি এতদিন এই গ্রুপ ডি রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারম্যান হিসেবে প্রাক্তন মুখ্য বনপাল অতনু রাহা থাকলেও মাস কয়েক আগেই তিনি সেই পদ থেকে অবসর নিয়েছেন। এদিকে অতনুবাবু অবসর নিলেও তাঁর জায়গায় নতুন কোনো চেয়ারম্যানকে নিয়োগ না করে উল্টে এই বোর্ডেরই একমাত্র সদস্য অশোক রায়কে চেয়ারম্যানের বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

কেননা যে দপ্তরের অধীনে রয়েছে এই গ্রুপ ডি রিক্রুটমেন্ট বোর্ড, সেই কর্মী বর্গ ও প্রশাসনিক দপ্তরের মন্ত্রী হিসেবে রয়েছেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে মুখ্যমন্ত্রী মাথার উপর থাকা সত্ত্বেও কেন এই সমস্যা চলছে তা নিয়ে একটা প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত এই রাজ্যে গ্রুপ ডি পদে প্রায় 54 হাজার কর্মী নিয়োগের কথা রয়েছে। ফলে কবে সেই কর্মী নিয়োগ হবে তা নিয়েও সিঁদুরে মেঘ দেখছেন অনেকেই। একাংশের মতে, 2019 এর 1 জানুয়ারি থেকে নতুন হারে রাজ্যে মহার্ঘ ভাতা চালু হবে। এমনকি ষষ্ঠ বেতন কমিশনও চালু হতে পারে। ফলে সব মিলিয়ে রাজ্যে রাজকোষে প্রবল ধাক্কা পড়বে। তাই এখনই এই নিয়োগের পথে হাটা সম্ভব নয়।

তবে অনেকের ধারণা, সামনেই লোকসভা ভোট। আর সেই লোকসভা ভোটের আগে রাজ্যের সাধারণ মানুষের মন পেতে গ্রুপ ডি নিয়োগ সংক্রান্ত একটি ঘোষণা করতে পারে সরকার। এদিকে 50 হাজার গ্রুপ ডি কর্মী নিয়োগের নিয়ে আশঙ্কা তৈরি হওয়ার পাশাপাশি গত 2017 সালের অষ্টম শ্রেণীর যোগ্যতা মানের জন্য 6000 গ্রুপ ডি পদে নিয়োগের পরীক্ষা নেওয়া হলেও তার সফল প্রার্থীদের কাছে এখনও সঠিকভাবে নিয়োগপত্র না পৌঁছনোয় তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে রাজ্যে।

কেন সকলের কাছে এখনও পর্যন্ত নিয়োগপত্র পৌঁছলো না এদিন এই প্রসঙ্গে বোর্ডের এক আধিকারিক বলেন, “এই নিয়োগপত্র পৌঁছে দেওয়ার কাজ ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। যেহেতু গোটা রাজ্যে এই প্রক্রিয়া চলছে, তাই সংশ্লিষ্ট অফিস গুলোতে আনুষ্ঠানিক নিয়োগ হতে কিছুটা সময় লাগছে। দ্রুত সেই প্রক্রিয়াও শেষ করা হবে।” আর বোর্ডের কর্তাদের এহেন কথায় এখন আশার আলো দেখতে শুরু করেছেন অনেকেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!