এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > গ্রামীণ অর্থনীতিকে আরও চাঙ্গা করতে সমবায় আন্দোলন নিয়ে বড়সড় ভাবনা রাজ্য সরকারের

গ্রামীণ অর্থনীতিকে আরও চাঙ্গা করতে সমবায় আন্দোলন নিয়ে বড়সড় ভাবনা রাজ্য সরকারের

Priyo Bandhu Media

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরে গ্রামীন অর্থনীতির কতোটা উন্নয়ন হয়েছে তার খতিয়ান তুলে ধরলেন এদিন সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায়। এবং এই উন্নয়নকে সফলতার শীর্ষে নিয়ে যেতে সমবায় আন্দোলনকে আরো জোরদার করে গ্রামেগঞ্জে ছড়িয়ে দেওয়ার বার্তা দিলেন তিনি।

এদিন মহাজাতি সদনে ৬৫তম নিখিল ভারত সমবায় সপ্তাহের অন্তিম দিনে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বললেন, অতি অল্প সময়ের মধ্যে সমবায়ের মাধ্যমে এ রাজ্যের লক্ষ লক্ষ মানুষ উপকৃত হয়েছে। গ্রামীণ অর্থনীতি যে কতোটা চাঙ্গা হচ্ছে তা এই উন্নয়ন দেখেই বোঝা যায়।

রাজ্যসরকার এখন আগের থেকে বেশি কৃষিঋণ দেওয়ার ব্যবস্থা করছে। কৃষকদের সু্যোগ সুবিধা নিয়ে সর্বদা সতর্ক থাকে এই সরকার। আর সমবায়ের মাধ্যমেও কৃষকদের জন্যেও আরো সুযোগ সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মন্ত্রী এটাও আশ্বাস দিলেন, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সমবায় প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে যুক্ত যেসব মানুষ ভালো কাজ করছে,সরকার তাদের দরকারে-অদরকারে সবসময় পাশে থাকবে। এরকম কিছু মানুষকে কাজে উৎসাহিত করার জন্যে রাজ্যসরকারের তরফ থেকে পুরস্কৃতও করা হয়েছে,সেই ধারা অব্যাহত থাকবে বলেও জানালেন মন্ত্রী।

“সরকার বদলের পর আমাদের রাজ্যে যাঁরাই বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভালো কাজ করেন এবং সাফল্য পান, সরকার তাঁদের গুরুত্ব, মর্যাদা দেয়, সংবর্ধিত করে।”- এমনটাই বক্তব্য ছিল মন্ত্রীর।এদিনের ভাষণে অরূপ বাবু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্বপ্নের প্রকল্প ‘কন্যাশ্রী’র ভূয়সী প্রশংসা করলেন। এছাড়া রাজ্যসরকারের যেসব প্রকল্পের সূত্র ধরে উন্নয়ন হয়েছে,প্রসঙ্গে টানলেন সেগুলোও।

বললেন,মুখ্যমন্ত্রীর মস্তিষ্কপ্রসূত প্রকল্প আজ বিশ্বের দরবারে বাংলাকে শ্রেষ্ঠ স্থানে নিয়ে গিয়েছে। সারা পৃথিবীর কাছে বাংলার নাম জ্বলজ্বল করছে। এটও যথেষ্ট গর্বের কারণ। সবুজ সাথী,শিশুসাথী,গতিধারা সহ একাধিক প্রকল্পের মাধ্যমে কীভাবে রাজ্যের ছাত্র ছাত্রী থেকে শুরু করে যুবক যুবতীরা উপকার পেয়েছেন, তার খতিয়ান তুলে ধরলেন মন্ত্রী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এর পাশাপাশি, মুখ্যমন্ত্রীর কথা মতো রাজ্যে ৭১০ টি সমবায় ব্যাঙ্ক চালু হওয়ার ফলে কীভাবে গ্রামবাসীরা উপকৃত হয়েছেন সেটাও জানালেন মন্ত্রী। এবং আগামী দিনে এই ব্যাঙ্ক আরো বেশি সংখ্যায় খোলা হবে এমনটাও আশ্বাস দিলেন তিনি।

এর মাধ্যমে রাজ্যের মহিলারা যে কতোটা স্বনির্ভর হতে পেরেছে সেটাও জানালেন তিনি। বললেন,রাজ্য সরকারের ঋণ পেয়ে গ্রামের মহিলারা গবাদি পশু পালন, মাছ,সব্জি চাষ থেকে শুরু করে ছোটখাটো ব্যবসাও শুরু করে কর্মসংস্থানের উপায় বের করতে পেরেছে। এটাকে রাজ্যসরকারের যুগান্তকারী সাফল্য বলেই উল্লেখ করলেন মন্ত্রী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!