এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সরকারি জমিতে খেলার মাঠই বিক্রি করে দিলেন তৃণমূল নেতারা! বিক্ষোভে উত্তাল দুর্গাপুর

সরকারি জমিতে খেলার মাঠই বিক্রি করে দিলেন তৃণমূল নেতারা! বিক্ষোভে উত্তাল দুর্গাপুর

Priyo Bandhu Media

অদৃষ্টের কি নিষ্ঠুর পরিহাস! শাসকের রোষানলে পড়ে এবার সরকারি খেলার মাঠও বিক্রি হয়ে যেতে বসেছে। সূত্রের খবর, দুর্গাপুরের 16 নম্বর ওয়ার্ডের ধান্দাবাগ এলাকায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরকারি জায়গা বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। যে ঘটনায় এখন প্রবল চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে এলাকায়।

জানা গেছে, এদিন এই গোটা ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় বাসিন্দারা প্রবল বিক্ষোভ দেখান। তাঁদের অনুযোগ, এই জমিটি দীর্ঘদিন ধরে সরকারি জমি হিসেবে ব্যবহৃত করা হচ্ছে। কিন্তু কিছু তৃণমূল নেতাকর্মী সেই মাঠ বিক্রি করে দিয়েছেন। অবিলম্বে জমির সঠিক চরিত্র প্রকাশ্যে আনার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

এদিন এই প্রসঙ্গে বিক্ষোভকারীদের মধ্যে রবিন বাগদী বলেন, “দীর্ঘদিন এই মাঠে এলাকার বাচ্চারা খেলাধুলা করে। এলাকার ছোট অনুষ্ঠানে আমরা এই মাঠ ব্যবহার করি। এটা সরকারি জায়গা। কিন্তু এলাকার এক তৃণমূল নেতা ও তার সঙ্গীরা এই মাঠ বিক্রি করে দিয়েছে। আমরা গোটা ব্যাপারটি জানতে পেরে বিষয়টিতে বাধা দিয়েছি।”

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

স্থানীয়দের মূল অভিযোগ, স্থানীয় বাসিন্দা ভুবনেশ্বর সিংহ ও অজয় মিশ্রের বিরুদ্ধে। কিন্তু তারা কেন এই কাজটি করলেন! একটা সরকারি মাঠ শাসকদলের ক্ষমতাবলে কি দখল করে নেওয়া যায়! যেখানে খোদ তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী বারেবারে সরকারি জমি জবরদখল থেকে সকলকে বিরত থাকার কথা বলছেন, সেখানে সেই দলেরই সদস্য হয়ে কেন তারা এই বেআইনি কাজে যুক্ত হলেন! এদিন এই প্রসঙ্গে ভুবনেশ্বর সিংহ এবং অজয় মিশ্র বলেন, “জমির সঠিক দলিল আমাদের কাছে রয়েছে। এলাকাবাসীরা আমাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলছে।”

অন্যদিকে অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা মনোজ সিংহ এই গোটা অভিযোগের কথা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করে গিয়েছেন। তবে এই ব্যাপারে বিজেপির দিকেই আঙুল তুলেছেন স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর সুশীল চট্টোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, “এই ঘটনায় তৃণমূলের কেউ জড়িত নয়। বিজেপি এলাকায় অশান্তি ছড়াতে নোংরা রাজনীতি করছে।”

তবে বিজেপির তরফে অবশ্য তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করা হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে পশ্চিম বর্ধমান জেলা বিজেপির গুণীজন সেলের সদস্য অমিতাভ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “খোঁজ নিয়ে দেখেছি ওখানে এলাকার বাসিন্দারা একটিমাত্র ছোট মাঠ বাঁচাতে লড়াই করছেন। এই ঘটনায় বিজেপির কোনো চক্রান্ত নেই।” তবে যেখানে এলাকাবাসীরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করছে, সেখানে কেন তৃণমূল বারেবারেই বিজেপির চক্রান্ত দেখছে! তা নিয়ে প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!