এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > চাকরি > আত্মসমর্পনের পুরস্কার- এবার রাজ্য সরকারি চাকরি পাচ্ছেন 36 কেএলও জঙ্গি

আত্মসমর্পনের পুরস্কার- এবার রাজ্য সরকারি চাকরি পাচ্ছেন 36 কেএলও জঙ্গি

ক্ষমতায় এসেই জঙ্গলমহলে মাওবাদী দমনে জঙ্গিদের মূল স্রোতে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সরকারের এই আবেদনে সাড়া দিয়ে অনেক মাওবাদীই এখন মূল স্রোতে ফিরে সরকারের দেওয়া চাকরি করছেন।

তবে শুধু জঙ্গলমহলই নয়, একসময়কার কেএলও আন্দোলনের আঁতুড়ঘর কুমারগ্রামেও এই জঙ্গী আন্দোলনকে স্থিমিত করতে উদ্যোগী হয় তৃণমূল সরকার। 2011 সালে রাজ্যে পালাবদলের পরই এই আত্মসমর্পণকারী জঙ্গিদের কর্মসংস্থানের দাবি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কয়েক দফায় আলোচনা করেন জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব।

আর সেই মতো এবার পঞ্চায়েত ভোটের পরই গত জুলাই মাসে 21 জন প্রাক্তন কেএলও জঙ্গি ও লিংকম্যানকে হোমগার্ডে নিয়োগ করে রাজ্য সরকার। যদিও বা একজন স্বাস্থ্য দপ্তরের এম্বুলেন্স চালানোয় এবং অপরজনের বালি খাদানের লাইসেন্স থাকায় চাকরিতে যোগ দিতে পারেননি। ফলে সেই সময় সরকারের দেওয়া চাকরিতে যোগ দেন 19 জন।

এদিকে আবার ফের এই 36 জন কেএলও জঙ্গি বা লিংকম্যান এখন সরকারের দেওয়া হোমগার্ডের নিয়োগ পত্র পেতে চলেছেন। সূত্রের খবর, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আজ চালসার টিয়ারবনের মাঠে জলপাইগুড়ি ও আলিপুরদুয়ার দুই জেলার প্রশাসনিক বৈঠক থেকেই তাদের হাতে হোমগার্ডের নিয়োগপত্র তুলে দেবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জানা গেছে ,গত সোমবার রাতে এই কেএলও প্রাক্তন জঙ্গিদের তালিকা নিয়ে তাদের হোম গার্ডের নিয়োগপত্র দিতে জেলা পুলিশ সুপারের অফিসে একটি বৈঠক করেছেন জেলা তৃণমূলের সভাপতি মোহন শর্মা, জেলা পরিষদের সভাধিপতি শিলা দাস সরকার এবং পুলিশ সুপার সুনীল কুমার যাদব। আর এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কেএলও জঙ্গি এবং লিংকম্যানদের প্রতিনিধিরাও।

এদিন এ প্রসঙ্গে জেলা পরিষদের সভাধিপতি বলেন, “বুধবারের প্রশাসনিক বৈঠকে প্রাক্তন কেএলও জঙ্গিদের হাতে চাকরির নিয়োগপত্র তুলে দিতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী। সেভাবেই তালিকা তৈরি করা হয়েছে।” কিন্তু ঠিক কে কে রয়েছে এই তালিকায়?

জানা গেছে, নৃপেন শিং বড়ুয়া, অমৃত দাস, বিনয় রায়, গজেন শিং কোঙার, চরকা দাস, হিরণময় দাসের মত এককালের দাপুটে কেএলও জঙ্গিরা এবার হোম গার্ডের চাকরির নিয়োগ পত্র পেতে চলেছেন। বিরোধীদের মতে, এবারে পঞ্চায়েত নির্বাচনে এই কুমারগ্রামে বেশ ভালোই ফল করেছে বিজেপি। সামনে লোকসভা ভোট। আর তাই সেই বিজেপিকে ঠেকাতেই প্রাক্তন কেএলও জঙ্গিদের চাকরি দিয়ে এখানকার রাজনৈতিক ভিত মজবুত করতে চাইছে রাজ্যের শাসক দল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

যদিওবা এই যুক্তি মানতে নারাজ জেলা তৃণমূলের সভাপতি মোহন শর্মা। তাঁর মতে, এই চাকরির সাথে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই। সব মিলিয়ে এখন 36 কেএলও জঙ্গিকে আজকের প্রশাসনিক বৈঠক থেকে আদৌ নিয়োগপত্র দেন কিনা মুখ্যমন্ত্রী সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!