এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > DA, HRA, ইনক্রিমেন্ট সঠিক না হওয়ায় ষষ্ঠ পে-কমিশনে সরকারি কর্মীদের ক্ষতি দেখে চোখ কপালে উঠবে

DA, HRA, ইনক্রিমেন্ট সঠিক না হওয়ায় ষষ্ঠ পে-কমিশনে সরকারি কর্মীদের ক্ষতি দেখে চোখ কপালে উঠবে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া এক্সক্লুসিভ – পূর্ব ঘোষণা মত, গতকাল মমতা বান্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন রাজ্য মন্ত্রিসভা ষষ্ঠ পে-কমিশনের সুপারিশে সিলমোহর দেয়। এরপরে এক সাংবাদিক বৈঠকে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র জানান, রাজ্য সরকার সরকারি কর্মীদের জন্য ‘সুখবর’ নিয়ে এসেছে। পে-কমিশন যে সুপারিশ দিয়েছিল – তার থেকেও নাকি বেশি দিতে চলেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু, রাজ্য সরকার যাকে ‘সুখবর’ বলে দাবি করছে – তা নিয়েই এখন চূড়ান্ত ক্ষোভ সরকারি কর্মীদের মধ্যে।

খাতা-পেন নিয়ে হিসেব করে তাঁরা দেখছেন – কমর্চারীদের প্রতিটি স্তরে যে পরিমান ‘কম’ পেয়ে তাঁদের ‘ক্ষতি’ হচ্ছে তা চোখ কপালে তুলে দেবার মত। এমনিতেই এরিয়ার নিয়ে সরকার কিছু জানায়নি। তার উপরে উচ্চবাচ্য নেই ডিএ নিয়েও! এইচআরএও ১৫% থেকে কমিয়ে করা হয়েছে ১২%, যেখানে কেন্দ্র সরকারীরা পান ২৪%। তাই সরকার যতই ৩% করে তিনটি ইনক্রিমেন্ট দিয়ে (যেখানে পাওয়ার কথা ৪ টি) দেখাচ্ছে বেতন বাড়ছে ২.৮ গুন – সরকারি কর্মচারীরা কিন্তু ‘ক্ষতির’ হিসেব করে রীতিমত মনমরা! আসুন একনজরে দেখে নেওয়া যাক, সরকারি কর্মীদের প্রতিটি স্তরে কি ‘ক্ষতি’ হচ্ছে –

গ্রূপ-ডি কর্মীদের ক্ষেত্রে –
বেসিক ছিল – ৬,৬০০ টাকা
নতুন বেসিক – ১৮,৪৮০ টাকা (অর্থমন্ত্রীর ২.৮ সূচক দিয়ে গুন করে)
বাড়ি ভাড়াতে কম – ৫৫৪ টাকা (৩% কমে যাওয়ায়)
কেন্দ্রীয় হিসাবে বাড়ি ভাড়াতে কম – ২,২১৮ টাকা (কেন্দ্রের ২৪% হিসাবে)
ডিএতে কম – ৩,১৪২ টাকা (১৭% বকেয়া ধরে)
মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৩,৬৯৬ টাকা
বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৪৪,২৫২ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৫,৩৬০ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৬৪,৩২০ টাকা

এলডিএ কর্মীদের ক্ষেত্রে –
বেসিক ছিল – ৮,৮৪০ টাকা
নতুন বেসিক – ২৪,৭৫২ টাকা (অর্থমন্ত্রীর ২.৮ সূচক দিয়ে গুন করে)
বাড়ি ভাড়াতে কম – ৭৪৩ টাকা (৩% কমে যাওয়ায়)
কেন্দ্রীয় হিসাবে বাড়ি ভাড়াতে কম – ২,৯৭০ টাকা (কেন্দ্রের ২৪% হিসাবে)
ডিএতে কম – ৪,২০৮ টাকা (১৭% বকেয়া ধরে)
মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৪,৯৫১ টাকা
বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৫৯,৪১২ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৭,১৭৮ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৮৬,১৩৬ টাকা

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

ইউডিএ কর্মীদের ক্ষেত্রে –
বেসিক ছিল – ১১,০৪০ টাকা
নতুন বেসিক – ৩০,৯১২ টাকা (অর্থমন্ত্রীর ২.৮ সূচক দিয়ে গুন করে)
বাড়ি ভাড়াতে কম – ৯২৭ টাকা (৩% কমে যাওয়ায়)
কেন্দ্রীয় হিসাবে বাড়ি ভাড়াতে কম – ৩,৭০৯ টাকা (কেন্দ্রের ২৪% হিসাবে)
ডিএতে কম – ৫,২৫৫ টাকা (১৭% বকেয়া ধরে)
মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৬,১৮২ টাকা
বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৭৪,১৮৪ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৮,৯৬৪ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ১,০৭,৫৬৮ টাকা

এইচএ কর্মীদের ক্ষেত্রে –
বেসিক ছিল – ১২,৭৫০ টাকা
নতুন বেসিক – ৩৫,৭০০ টাকা (অর্থমন্ত্রীর ২.৮ সূচক দিয়ে গুন করে)
বাড়ি ভাড়াতে কম – ১,০৭১ টাকা (৩% কমে যাওয়ায়)
কেন্দ্রীয় হিসাবে বাড়ি ভাড়াতে কম – ৪,২৮৪ টাকা (কেন্দ্রের ২৪% হিসাবে)
ডিএতে কম – ৬,০৬৯ টাকা (১৭% বকেয়া ধরে)
মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৭,১৪০ টাকা
বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৮৫,৬৮০ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ১০,৩৫৩ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ১,২৪,২৩৬ টাকা

এসও কর্মীদের ক্ষেত্রে –
বেসিক ছিল – ১৩,৬৮০ টাকা
নতুন বেসিক – ৩৮,৩০৪ টাকা (অর্থমন্ত্রীর ২.৮ সূচক দিয়ে গুন করে)
বাড়ি ভাড়াতে কম – ১,১৪৯ টাকা (৩% কমে যাওয়ায়)
কেন্দ্রীয় হিসাবে বাড়ি ভাড়াতে কম – ৪,৫৯৬ টাকা (কেন্দ্রের ২৪% হিসাবে)
ডিএতে কম – ৬,৫১২ টাকা (১৭% বকেয়া ধরে)
মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ৭,৬৬১ টাকা
বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ৯১,৯৩২ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে মাসে মোট কম পাচ্ছেন – ১১,১০৮ টাকা
কেন্দ্রীয় হারে বাড়ি ভাড়া ধরলে বছরে মোট কম পাচ্ছেন – ১,৩৩,২৯৬ টাকা

এই হিসেব করা হয়েছে এন্ট্রি লেভেলের পে-স্কেল ধরে। ফলে, যত বেশিদিন কাজ করেছেন সরকারি কর্মীরা, তাঁদের ‘ক্ষতির’ পরিমান অর্থাৎ বেতন কম পাওয়ার পরিমান তত বেশি। এছাড়াও, রাজ্য সরকার যেমন একটি ইনক্রিমেন্ট ধরে নি, সেটিও বাদ দেওয়া হয়েছে। সেই ইনক্রিমেন্ট ধরলে গুণিতকের সূচক ২.৮-এর স্থানে ২.৮৯ হত। অর্থাৎ ‘ক্ষতির’ পরিমান আরও বাড়ত। আর তাই, এই হিসেব হাতে আসতেই সরকারি কর্মীদের মধ্যে শুরু হয়েছে চূড়ান্ত হতাশা। যদিও তাঁরা এই সংক্রান্ত জিওর জন্য অপেক্ষা করছেন – তাঁদের মতে, সেই জিও হাতে পেলেই প্রকৃত চিত্র পরিষ্কার হবে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!