এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কেন্দ্রে পরবর্তী সরকার যেই গঠন করুক, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা কতটা সম্ভব? বৈঠকে কেন্দ্রীয় সচিবরা

কেন্দ্রে পরবর্তী সরকার যেই গঠন করুক, নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি রক্ষা কতটা সম্ভব? বৈঠকে কেন্দ্রীয় সচিবরা

ভোট আসে ভোট যায়। আর ভোটের বৈতরণী পার হতে প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক দলই সাধারণ মানুষের কাছে আরও বেশি করে পৌঁছে যাওয়ার জন্য নির্বাচনী প্রচারের চমক হিসেবে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি দেন। 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রের ক্ষমতার মসনদ দখল করতে শাসক-বিরোধী প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক দলই সাধারণ মানুষের কাছে তাদের প্রতিশ্রুতির পসরা সাজিয়ে তা উপস্থাপিত করতে শুরু করেছে।

একদিকে কেন্দ্রে ফের ক্ষমতায় আসতে নরেন্দ্র মোদি ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক শিক্ষকদের পেনশনের কথা যেমন ঘোষণা করছেন, ঠিক তেমনই দেশের পাঁচ কোটি পরিবারকে মাসে 6 হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলে ঘোষণা করেছেন কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী। কিন্তু ক্ষমতায় যে সরকারই আসুক না কেন, তাদের এই প্রতিশ্রুতি আদৌ বাস্তবে রূপায়িত হওয়া সম্ভব কিনা তা নি য়ে এবার কেন্দ্রের সচিব পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়ে গেল বলে জানা গেছে।

সূত্রের খবর, সম্প্রতি এই ব্যাপারে ক্যাবিনেট সচিব প্রদীপ কুমার সিনহা কেন্দ্রের বিভিন্ন মন্ত্রকের সচিবদের সঙ্গে আগামী সরকারের বিষয়ে একটি আলোচনা করেছেন। পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল তাদের ইশতেহারে কী কী প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

কেননা ক্ষমতায় যে দলই আসুক না কেন, সেই সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলো তাদের প্রতিশ্রুতি পালন করতে কতটা বাস্তব উদ্যোগ নেবেন এবং সেই প্রতিশ্রুতিগুলো সত্যিই যদি ঠিকঠাক পালন হয় তাহলে সরকারের অর্থ ভান্ডারে কতটা চাপ পড়বে তা নিয়েও হিসেব-নিকেশ শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, ভোটে জিতবে এবার কংগ্রেসের গরিব পরিবারকে বছরে 72 হাজার টাকার ন্যায় প্রকল্প, আগামী এক বছরের মধ্যে কমপক্ষে 24 লক্ষ চাকরি, 100 দিনের কাজের দিন বাড়ানো, কৃষি ঋণ মুকুব এর মতো বিষয়গুলো নিয়ে যেমন আলোচনা হয়েছে, ঠিক তেমনই বিজেপির প্রতিশ্রুতির মধ্যে ষাটোর্ধ্ব কৃষকদের টেনশন, গ্রামীণ উন্নয়নে আগামী পাঁচ বছরে 25 লক্ষ কোটি টাকা ব্যয়, গরিবদের বাড়ি নির্মাণ ইত্যাদির মতো বিষয়গুলোর দিকেও নজর দেওয়া হয়েছে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, ভোটের সময় নেতারা এই নির্বাচনের বৈতরণী পার হতে এবং ক্ষমতা দখল করতে বিভিন্ন রকম প্রতিশ্রুতি দিয়ে থাকেন। কিন্তু বাস্তবে অনেক সময় সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়, আবার অনেক ক্ষেত্রে হয় না। কিন্তু এবারে ক্ষমতায় যে সরকারই আসুক না কেন, আগেভাগেই তাদের ইশতেহার দেখে তারা ঠিক কী কী প্রতিশ্রুতি দিয়েছে এবং বাস্তবে তা কতটা সম্ভব সেই ব্যাপারে আলোচনা শুরু করে দিলো কেন্দ্রের সচিব মহল বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!