এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ভাতা বাড়ছে রাজ্যপালদের,বাংলার রাজ্যপালের প্রাপ্য শুনলে চোখ কপালে উঠবে

ভাতা বাড়ছে রাজ্যপালদের,বাংলার রাজ্যপালের প্রাপ্য শুনলে চোখ কপালে উঠবে

সম্প্রতি রাজ্যপালদের ভাতা সংক্রান্ত বিষয়ে কেন্দ্র এক নির্দেশিকা জারি করেছে।যার বিস্তারিত খুটিনাটি পড়লে চোখ কপালে উঠে যাওয়ার জোগার হবে অনেকেরই।সূত্রে খবর,কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী সারা ভারতবর্ষের সমস্ত রাজ্যপালদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভাতা পান পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী।বিভিন্ন খরচাবাবদ রাজ্যপাল পাবেন 81 লক্ষ টাকা।এমনকী কোলকাতা ও দার্জিলিং-এ যে দুটি রাজভবন রয়েছে তার রক্ষনাবেক্ষনের জন্যে বরাদ্দ হয়েছে 72.06 লক্ষ টাকা।80 লক্ষ টাকার ভাতা দেওয়া হচ্ছে রাজ্যপালের গৃহসজ্জার জন্যও।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এ তো গেল রাজ্যের কথা।যদি তামিলনাডুর দিকে তাকানো যায় তাহলে দেখা যাবে ভ্রমন,অতিথি আপ্যায়ন,বিনোদন সহ বিভিন্ন খাতে সেখানকার রাজ্যপালের জন্য বরাদ্দ 1.66 লক্ষ টাকা।এমনকী পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের মত তামিলনাডুর রাজ্যপালের চেন্নাই ও উটি এই দুটি রাজভবনের গৃহসজ্জার জন্যে বরাদ্দ হয়েছে 7.50 লক্ষ টাকা।একই সঙ্গে এই ভবনদুটির রক্ষনাবেক্ষনের জন্যে দেওয়া হয়েছে 6 কোটি 50 লক্ষ টাকা।বিহারের রাজ্যপালের বরাদ্দ ভাতার পরিমান 1.62 কোটি টাকা।যার গৃহসজ্জায় 62 লক্ষ ও পাটনার রাজভবনের রক্ষনাবেক্ষনের জন্য 80 লক্ষ টাকা দেওয়া হবে তাঁকে।মহারাষ্ট্রের রাজ্যপালের জন্যে 1.14 কোটি ও কর্নাটকের রাজ্যপালের জন্যে বরাদ্দ অর্থের পরিমান 1.05 কোটি টাকা।

রাজস্থানের রাজ্যপালের এক্ষেত্রে বরাদ্দ ভাতার পরিমান কিছুটা কম।তার বরাদ্দ 93 লক্ষ টাকা।উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল পান 66 লাখ টাকা।যেখানে তাঁর গৃহসজ্জার জন্য 10 লক্ষ ও রাজভবনের রক্ষনাবেক্ষনে 3 কোটি 53 লক্ষ টাকা।গুজরাতের রাজ্যপাল 55 লাখ,অন্য খরচের জন্য 15 লাখ ও রাজভবনের জন্য 20 লক্ষ টাকা।হরিয়ানার রাজ্যপাল 54.5 লাখ টাকা পান।খরচেল জন্য 10 লাখ ও রাজভবন সংস্কারের জন্য 21.6 লাখ টাকা।এছাড়াও অরুনাচল,হায়দ্রাবাদ মধ্যপ্রদেশের রাজ্যপালের অর্থের অঙ্ক বিস্ময়কর।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!