এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > গোর্খাল্যান্ড নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতির, জেনে নিন বিস্তারিত

গোর্খাল্যান্ড নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য বিজেপি রাজ্য সভাপতির, জেনে নিন বিস্তারিত

বারে বারেই পাহাড়ে গিয়ে গোর্খাল্যান্ডের কথা বলে বিতর্ককে উসকে দিয়েছিলেন তিনি। যা বিরোধীদের বিজেপি বিরোধিতায় নতুন অস্ত্র তৈরি করে দিয়েছিল। কিন্তু এবার সেই মন্তব্য থেকে 180 ডিগ্রি ঘুরে গেলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

সূত্রের খবর, রবিবার নাগরাকাটায় বিজেপির একটি দলীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। আর সেখানেই উপস্থিত ছিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সাংসদ দিলীপ ঘোষ, আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ জন বারলা, জলপাইগুড়ি জেলা বিজেপির সভাপতি দেবাশীষ চক্রবর্তী, বিজেপির দুই মন্ডল সভাপতি মনোজ ভুজেল, নিরঞ্জন সরকার সহ অন্যান্যরা। আর সেই সভাতেই বক্তব্য রাখতে গিয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, “গোর্খাল্যান্ড কখনোই আমাদের ইস্যু ছিল না।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, এর আগে পাহাড়ে যে কোন উত্তেজনা বা যে কোনো নির্বাচনে এই বিজেপি নেতাদের একাধিকবার গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে সরব করতে দেখা গেছে। ফলে নির্বাচনের পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি কেন এই ব্যাপারে সরে এলেন! তা নিয়ে কিছুটা হলেও প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এদিকে এদিনের সভায় প্রায় 300 জন নেতাকর্মী বিজেপিতে যোগদান করেন। আর এরপরই বিক্ষুব্ধদের উদ্দেশ্যে কড়া বার্তা দিতে দেখা যায় দিলীপ ঘোষকে। তিনি বলেন, “যাদের দলে নেওয়া হয়েছে, তারা দলেই থাকবেন। এটাই দলের নিয়ম‌। যারা দলের নিয়ম মানবে না, তারা দল ছেড়ে চলে যাক।”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই তৃণমূল, সিপিএম এবং কংগ্রেস থেকে প্রচুর কর্মী এবং নেতা বিজেপিতে যোগদান করতে শুরু করেন। যার ফলে বঙ্গ বিজেপিতে পুরনো বনাম নতুনের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসতে থাকে। আর এতে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়ে গেরুয়া শিবির। আর তাই 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে মূল টার্গেট পূরণ করার আগেই যাতে কোনরূপ কোন্দল প্রকাশ্যে না আসে তার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে এদিন কড়া বার্তা দিয়ে রাখলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

এদিকে ক্ষমতায় এলেই বিজেপি এনআরসি প্রয়োগ করবে বলে জানিয়ে দেন দিলীপ ঘোষ। সব মিলিয়ে গোর্খাল্যান্ড, এনআরসি এবং দলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে বঙ্গ রাজনীতিতে শোরগোল তুললেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!