এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > রায় বেরোল গোধরাকাণ্ডের – জেনে নিন বিস্তারিত

রায় বেরোল গোধরাকাণ্ডের – জেনে নিন বিস্তারিত

প্রায় ১৬ বছর তদন্ত চলার পর এদিন ২০০২ সালের গোধরা কান্ডের দুজন দোষীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের নির্দেশ দিল আহমেদাবাদ স্পেশাল সিট আদালত।  ফারুক ভানা এবং ইমরান শেরু নামক এই দুজনেরই শাস্তি ঘোষণা করল বিচারপতি এইচ সি ভোরা।আর হোসেন সোলেমান মোহন,কসম ভামেদি ও ফারুক ধানটিয়া নামের এই তিনজন অভিযুক্তকে প্রমাণের অভাবে বেকসুর খালাস করল আদালত।

২০০২ সালে অযোধ্যা থেকে ফেরার সময় গুজরাতের গোধরা স্টেশনে সবরমতি এক্সপ্রেসে ট্রেনের একটি কামরায় ভয়াবহ অগ্নিসংযোগ করা হয়। এই ঘটনার জেরে মৃত্যু হয় ৫৯ জনের। নাশকতার অভিযোগ ওঠে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে। সংঘর্ষের জেরে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির শিকার হয় গুজরাট। ১০ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ যায়। ২০১১ সাল থেকে তদন্ত শুরু হয়। খুন,খুনের ষড়যন্ত্রের অপরাধে এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত ৩১ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত।

এরপর ২০১৭ সালে সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে ১১ জনের মৃত্যুদন্ড এবং ২০ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের নির্দেশ দেয় আদালত। এবং ৬৩ জনের বিরুদ্ধে তথ্য প্রমাণ না পেয়ে বেকসুর খালাস করে। সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ফের আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। শুনানি চলাকালীন ২০১৫-১৬ সালে হোসেন সুলেমান মোহন,কাসাম ভামেদি,ফারুক দান্তিয়া,ফারুক ভানা ও ইমরান শেরু নাম এই পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। এই মামলার প্রেক্ষিতেই আজ রায় দিল বিশেষ আদালত।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!