এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গণপিটুনি নিয়ে মুখ খুলে বিজেপির অস্বস্তি শতগুন বাড়িয়ে দিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

গণপিটুনি নিয়ে মুখ খুলে বিজেপির অস্বস্তি শতগুন বাড়িয়ে দিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সহ তাঁর এনডিএ সরকারকে প্রশ্নের মুখে দাঁড় করালেন  ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বাম নেতা মানিক সরকার। তিনি দাবি করলেন যে, এনডিএ সরকার মানুষকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণে সার্বিকভাবেই ব্যর্থ তাই মানুষের দৃষ্টিভঙ্গি বদলের জন্যে সবরক চেষ্টা করছেন। তাঁর রাজ্য ত্রিপুরাতেও পরিস্থিতি একই রকম বলে জানালেন মাণিক বাবু। তাঁর মতে এই কারণেই দেশে গণপিটুনির ঘটনা বাড়ছে। একই সাথে তিনি বিভিন্ন গণপিটুনির ঘটনার ব্যাপক নিন্দা করলেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দিল্লীতে বাম শিবিরের বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ গ্রহণ করেন মাণিক সরকার। সেখানেই ত্রিপুরা রাজ্যে সাম্প্রতিক সময়ে  গণপিটুনিতে চারজনের মৃত্যুর ঘটনা প্রসঙ্গে নিজের মতামত জানিয়ে তিনি বললেন, ” বিজেপি সমাজকে জাতপাতের ভিত্তিতে ভাগ করতে চাইছে। গোটা দেশেই এই প্রবণতা দেখা ‌যাচ্ছে। সম্প্রতি ত্রিপুরায় চারজনকে পিটিয়ে মারা হয়েছে। গত ২৫ বছরের বাম আমলে একটিও গণপিটুনির ঘটনা ঘটেনি।” পাশাপাশি তিনি দাবি করলেন যে যখন সরকার তার দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণ করতে পারে না তখনই গণপিটুনির মতো ঘটনা ঘটে। মানুষের মনোযোগ অন্যদিকে ঘুরিয়ে দিতেই মূলত সরকার এই কাজ করে। তাঁর মতে দেশের এই অপ্রত্যাশিত এবং উত্তেজনাপূর্ণ পরিবেশের জন্যে সংখ্যালঘু এবং দলিত মানুষেরা সব থেকে বেশি ভীত সন্ত্রস্ত।

বিজেপি দলের সমালচনা করে ত্রিপুরা রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী আরও বললেন, ” বিজেপির কাজই হল এই গরু পাচারের নামে, শিশু চুরির নামে গণপিটুনি। আবার বিপ্লব দেবও কেন্দ্রের মতো নীতি নিয়ে চলেছে। সেখানেও বিজেপি সরকার মানুষের চাওয়া পাওয়া পূরণ করতে ব্যর্থ। ত্রিপুরার তফসিলি জাতি-উপজাতি এলাকায় মানুষের আয়ের একটা রাস্তা ছিল মহাত্মা গান্ধী নাশনাল রুরাল এমপ্লয়মেন্ট গ্যারান্টি অ্যাক্ট। এই নিয়ে কোনও কাজ হচ্ছে না। রাজ্যে ইতিমধ্যেই অনাহার শুরু হয়েছে।” বিজেপি বিরোধী ফ্রন্ট গঠন প্রসঙ্গে মাণিক সরকার বললেন, ”  ওই নতুন জোটকেই ভয় পাচ্ছে বিজেপি। তারা মনে করছে মানুষ এবার তাদের বিরুদ্ধে চলে ‌যাচ্ছে। তার মধ্যেই দেখা ‌যাচ্ছে গণপিটুনির ঘটনা বাড়ছে। এভাবেই বিজেপি সমাজে বিভাজন সৃষ্টি করতে চায়।”

 

Top
error: Content is protected !!