এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > গেরুয়া শিবিরকে আটকাতে বিরোধীদের ভরসা ‘জমি মাফিয়ার’ ছাপ লাগা হেভিওয়েট নেতাই!

গেরুয়া শিবিরকে আটকাতে বিরোধীদের ভরসা ‘জমি মাফিয়ার’ ছাপ লাগা হেভিওয়েট নেতাই!

বাংলায় একটা উক্তি আছে ‘ঠেলার নাম বাবাজি – ঠেলায় না পড়লে বিড়াল গাছে চড়েনা’ কথাটা এবার পুরোপুরি সত্যি হলো। রাজনৈতিক মঞ্চে ভোট যুদ্ধে জেতার জন্য রাজনৈতিক নেতাদের বরাবরই সমাজ বিরোধী বা মাফিয়াদের সাথে যোগাযোগ রাখতে দেখা যায়। যা নিয়ে রাজনৈতিক মঞ্চেও তুমুল বিতর্ক হয়। এবার সেই বিতর্ককেই উসকে দিতে সমাজবাদী পার্টি এবার জমি মাফিয়ার সাহায্য নিতে চলেছে। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় রাজনৈতিক চাপানউতোর শুরু হয়ে গেছে।

এবার বিধানসভা উপনির্বাচনে সমাজবাদী পার্টির তরফ থেকে জমি মাফিয়া আজম খানের স্ত্রী তাজিন ফাতিমাকে প্রার্থী করা হয়েছে। তিনি প্রার্থী হয়েছেন রামপুর কেন্দ্রে‌। এই রামপুর কেন্দ্রের বিধায়ক ছিলেন জমি মাফিয়া আজম খান। জমি মাফিয়া হলেও ভোটযুদ্ধে রামপুর কেন্দ্রে জিততে আজম খানের উপরেই ভরসা করতে চলেছে সমাজবাদী পার্টি।আজম খান সাংসদ হওয়ার পর থেকে রামপুর কেন্দ্রে তার বিধায়ক পদটি খালি পড়ে থাকে। সেই কারণেই এখানে এবার উপনির্বাচন ঘোষণা করা হয়েছে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আজম খানের স্ত্রী বর্তমানে রাজ্যসভার সাংসদ। তাই যোগ্য প্রার্থী হিসেবে সমাজবাদী পার্টি তাকেই রামপুর কেন্দ্রের জন্য বেছে নিয়েছে। আগামী একুশে অক্টোবর উত্তর প্রদেশের পাঁচটি কেন্দ্রে বিধানসভা উপনির্বাচন। পাঁচটি কেন্দ্রে সমাজবাদী পার্টি তাদের প্রার্থী ঘোষণা করেছে। পাঁচটি কেন্দ্র যথাক্রমে ঘোষী, মানিকপুর, জাইদপুর, জালালপুর ও প্রতাপগড় কেন্দ্রে প্রার্থী হয়েছেন যথাক্রমে সুধাকর সিং, নির্ভয় সিং পাটেল, গৌরব সিং রাওয়ত, সুভাষ রাই ও ব্রজেশ বর্মা পাটেল।

উত্তর প্রদেশের পাঁচটি বিধানসভায় উপনির্বাচন এবার। মনে হচ্ছে এবার হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে। জিততে মরিয়া সমাজবাদী পার্টি দিনরাত এক করে ভোটের প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। অন্যদিকে বিরোধী দলও পিছিয়ে নেই। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, সমাজবাদী পার্টির মুখ অখিলেশ যাদব। এবার সেই মুখ কতটা কাজে আসে ভোটের বাজারে, সেদিকেই নজর রাখবে রাজনৈতিক মহল। তবে ভোটযুদ্ধে মাফিয়া আসায় রাজনৈতিক মঞ্চে রীতিমতো বিতর্ক শুরু হয়েছে উত্তরপ্রদেশে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!