এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > গনিখানকে ভিত্তি করে আর মমতাতে ভবিষ্যৎ দেখে দ্রুত বদলাচ্ছে মালদহের “মৌসম”

গনিখানকে ভিত্তি করে আর মমতাতে ভবিষ্যৎ দেখে দ্রুত বদলাচ্ছে মালদহের “মৌসম”

কদিন আগেও যে দপ্তরে কংগ্রেসের দলীয় প্রতীকে ছাড়া আর কিছু থাকত না, শুক্রবার থেকে সেই নূর ম্যানশন অর্থাৎ সদ্য কংগ্রেসত্যাগী তৃণমূল যোগ দেওয়া মালদহের মৌসম বেনজির নূরের সদর দপ্তরে এখন শুধুই তৃণমূলের প্রতীকের ছবি। এদিকে কংগ্রেসের সাংসদ হিসেবে এই মৌসম নুরের সদর দপ্তরে যখন শুধুমাত্র কংগ্রেসের প্রতীক ছাড়া আর কিছু থাকত না, এখন সেইখানে ছেয়ে গেছে তৃণমূলের জোড়া ফুলের ছবি।

জানা গেছে, এবারে মৌসাম নুরের দপ্তরে তিনজনের ছবি থাকছে। যার মধ্যে রয়েছে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রবাদপ্রতিম প্রয়াত কংগ্রেস নেতা বরকত সাহেব এবং সেই মৌসম নূরেরই মা তথা প্রয়াত কংগ্রেস নেত্রী রুবি নুরের ছবি। অন্যদিকে মৌসম অনুগামীদের দাবি অনুযায়ী কংগ্রেস নেত্রী থাকার সময় মৌসমের সভা-সমিতির ছবিগুলো রাখার ব্যাপারে কথা চলছে। তবে শেষ পর্যন্ত তা নিয়ে কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সাথে সাথেই নিজের সেলফোনটিত সবসময়ই ব্যস্ত থাকতে দেখা গেছে মৌসাম নুরকে। সেই ব্যস্ততার মধ্যেই হালকা জল খেয়ে গলা ভেজানোর পর সেই মৌসম বেনজির নূর বলেন, “পুরনো সবকিছু তো এক লহমায় ছেড়ে আসা যায় না। শেষ মুহূর্তেও দলবদলের সময় একটা চাপা কষ্ট ছিল। কিন্তু জেলায় বিভেদকামী যেভাবে দাঁত বের করে চলেছে তাতে আর দেরি করলে ভুল হতো। বরকত সাহেবের হাতে গড়া সমন্বয়ের আদর্শ আজ সংকটে। এই মুহূর্তে প্রতিরোধই আসল,অন্য কিছু নয়।”

অন্যদিকে দিনে, রাতে ফোনে ব্যস্ততার রহস্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “মানুষের ভালোবাসাই তো কাজের প্রেরণা। একটা ফোন ধরলে আর দশখানা ফোন ওয়েটিং থাকছে। সবার সঙ্গেই কথা বলছি। কংগ্রেস থেকে তৃণমূল জেলার নানা প্রান্তের নানা মানুষের শুভেচ্ছার বহর আমাকে আরও প্রতিজ্ঞাবদ্ধ করছে।”

তবে কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দিলেও একদা কংগ্রেসের প্রয়াত গনিখানের ছবি এখনও থাকছে সেই মৌসমের দপ্তরে। আর গনিখানের পাশেই যুক্ত হয়েছে মৌসমের বর্তমান দল তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি। যা দেখে অনেকেই বলছেন গনিখান ভিত্তি আর মমতা ভবিষ্যৎ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!