এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > “গদ্দারদের” বাদ রেখেই ব্রিগেডের মহা-সমাবেশের মহাজোটের তালিকা তৈরি করছেন মমতা ব্যানার্জি

“গদ্দারদের” বাদ রেখেই ব্রিগেডের মহা-সমাবেশের মহাজোটের তালিকা তৈরি করছেন মমতা ব্যানার্জি

সম্প্রতি দলের কোর কমিটির বৈঠকে দলীয় নেতাদের অনেককেই বিজেপির সাথে যোগ রাখার অভিযোগে কড়া বার্তা দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রয়োজনে তাদের দল ছেড়ে বেরিয়েও যেতে বলেছেন তিনি। তবে শুধু দল নয়, এবার 2019 এর লোকসভায় বিজেপিকে সরাতে মহাজোটের ভেতর থেকে যারা সেই বিজেপিকেই সাহায্য করছেন তাদের ছেটে ফেলার জন্যে তৎপর হচ্ছেন তৃনমূল সুপ্রিমো।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, লোকসভা নির্বাচনের দিন যতই এগিয়ে আসছে ততই বিজেপি বিরোধীতার সুরকে আরও চওড়া করছেন বাংলার প্রশাসনিক প্রধান। দেশের সমস্ত বিরোধী দলকে নিয়ে তাঁর উদ্যোগেই তৈরি হয়েছে বিজেপি বিরোধী মহাজোট। কিন্তু প্রথমে আগ্রহ দেখালেও সম্প্রতি সেই মহাজোটের নীতি ভেঙে উল্টে বিজেপিকেই সমর্থন করেছে চন্দ্রশেখর রাওয়ের তেলেঙ্গানা রাস্ট্রীয় সমিতি এবং নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল।

তাই এবারে তাদেরকে বাদ দিতেই আগামী 19 জানুয়ারী কোলকাতায় ব্রিগেড সমাবেশে দেশের সকল বিরোধী রাজনৈতিক দলকে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, তৃনমূলের এই ব্রিগেড সমাবেশে আমন্ত্রিতদের তালিকায় যেমন রয়েছে বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রবল বিরোধী হলেও সিপিএম কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী, সোনিয়া গান্ধী থেকে শুরু করে আরএসপি, সিপিআই, ফরওয়ার্ড ব্লক, কাশ্মীরের ন্যাশনাল কনফারেন্স, আম আদমি পার্টির অরবিন্দ কেজরিওয়াল, তেলেগু দশম পার্টির চন্দ্রবাবু নাইডু উত্তরপ্রদেশের সপা এবং বসপার মত রাজনৈতিক দলগুলি। কিন্তু সেই তালিকা থেকে বাদ চন্দ্রশেখর রাও এবং নবীন পট্টনায়েকের দল।কিন্তু কেন?

জানা গেছে, বিজেপিকে সরাতে কমাস আগেই নবান্নে এসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী একটি আলোচনা করলেও পরবর্তীতে সংসদে মোদির বিরুদ্ধে অনাস্থা আনা হলেও সেখানে ভোটদানে বিরত থাকে চন্দ্রশেখর রাওয়ের দলের সদস্যরা। অন্যদিকে রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারপার্সন পদে কংগ্রেসের প্রার্থীকে সমর্থন না করে নবীন পট্টনায়েক এবং চন্দ্রশেখর রাওয়ের দলের সদস্যরা বিজেপি প্রার্থীকেই ভোট দেন। আর এতেই চরম ক্ষুদ্ধ হন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তাই 19 শে জানুয়ারীর বিরোধী মহাজোটের ব্রিগেড সমাবেশের আমন্ত্রিতদের তালিকায় এই দুই দলকে বাদ রেখে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমান করে দিলেন, বিজেপি বিরোধীতায় দুষ্টু গরুর চেয়ে শূন্য গোয়াল ঢের ভালো।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!