এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ফেডারেল ফ্রন্টের আরেক শরিক কংগ্রেসের দিকে, বাঙালি প্রধানমন্ত্রী হতে আবার কি ধাক্কা?

ফেডারেল ফ্রন্টের আরেক শরিক কংগ্রেসের দিকে, বাঙালি প্রধানমন্ত্রী হতে আবার কি ধাক্কা?

কেন্দ্র থেকে বিজেপিকে সরানোর জন্য এবার প্রথম থেকেই তৎপর হয়ে উঠেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আর তাইতো তাঁর হাত ধরেই বিভিন্ন বিরোধী দলকে নিয়ে তৈরি হয়েছে বিরোধী মহাজোট। যে বিরোধী মহাজোটে রয়েছে কংগ্রেস সহ বিভিন্ন অবিজেপি দলগুলি। কিন্তু সম্প্রতি দেশের পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের মধ্যে ফলাফলে দেখা গেছে যে, তিন রাজ্যেই ক্ষমতা দখল করেছে কংগ্রেস।

এমনকি এই রাজ্যে তৃণমূলের সঙ্গে আগামী লোকসভা নির্বাচনে জোটের ব্যাপারে প্রদেশ নেতৃত্তের আপত্তিকেও মান্যতা দিচ্ছে কংগ্রেস হাইকমান্ড। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে সেই বিরোধী মহাজোট তৈরির অন্যতম কাণ্ডারী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী রূপে দেখবার জন্য রাজ্যের শাসকদলের নেতা, মন্ত্রীরা দাবি তুললেও শেষ পর্যন্ত কংগ্রেস সহ অন্যান্য বিরোধী দলগুলো তা ঠিক কতটা সফল করতে দেবে তা নিয়ে একটা প্রশ্নচিহ্ন তৈরি হয়ে গিয়েছে।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

আর বিরোধী মহাজোটের এই ডামাডোলের মধ্যেই এবার কংগ্রেসের সঙ্গে আসন সমঝোতায় একধাপ এগোল মহারাষ্ট্রের এনসিপি। সূত্রের খবর, 48 লোকসভা আসন বিশিষ্ট মহারাষ্ট্রে 20 টিতে কংগ্রেস এবং 20 টিতে এনসিপি প্রার্থী দেবে বলে ঠিক হয়েছে। তবে বাকি আটটা আসনে এখনও পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আর এখানেই কিছুটা হলেও চিন্তার ছাপ দেখা গিয়েছে অন্যান্য অবিজেপি দলগুলির মধ্যে। কেননা কংগ্রেস যদি শক্তিশালী হয়ে ওঠে তাহলে তাঁরাই প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার হবে।

আর তাহলে অকংগ্রেসী ও অবিজেপি জোটের পক্ষে বারবার সওয়াল করা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রের ক্ষমতা দখলের স্বপ্ন অনেকটাই ধাক্কা খাবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে কংগ্রেসের সঙ্গে সমঝোতা প্রসঙ্গে প্রফুল প্যাটেল বলেন, “সম্পূর্ণ দলগুলি বিজেপি বিরোধী লড়াইয়ে ভালো ফল করবে। আশা করি এই জোট অনেক ভাল ফল করবে। যেসব দল আম্বেদকরের মতাদর্শে বিশ্বাসী, তাঁদের আমরা একজোট করতে চাই।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, কেন্দ্রের ক্ষমতা দখলে বারে বারেই আঞ্চলিক দলগুলিকে নিয়ে জোটের পক্ষে সওয়াল করেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই সেই বিজেপিকে সরাতে কংগ্রেস যদি প্রবল শক্তিশালী হয়ে ওঠে তাহলে অন্যান্য আঞ্চলিক দলগুলিকে তাঁরা ঠিক কতটা গুরুত্ব দেবে তা নিয়ে একটা শঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

Top
error: Content is protected !!