এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বাপ-বেটার কুশলী চাল আর দেবতার অভিশাপের ‘ভয়’ দেখিয়ে উত্তরবঙ্গে বিজেপির রথ রোখার চেষ্টা

বাপ-বেটার কুশলী চাল আর দেবতার অভিশাপের ‘ভয়’ দেখিয়ে উত্তরবঙ্গে বিজেপির রথ রোখার চেষ্টা

বিজেপির রথযাত্রা আটকাতে বেশ কৌশলী চাল দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী ও তাঁর পুত্র এমনটাই মত রাজনৈতিক মহলের। একদিকে রাসমেলা ময়দানে চলছে রাসের মেলা। অন্যদিকে, জেলা বিদ্যালয় ক্রীড়া সংস্থাকে সামনে রেখে খেলার জন্য কার্যত শহরের সমস্ত মাঠ দখল করে নিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। ইতিমধ্যেই ক্রীড়াসূচীও ঘোষণা হয়েছে। আর তাই রথযাত্রার জন্য ফাঁকা মাঠ পাচ্ছে না বিজেপি।

পাশাপাশি বিজেপি কে দেখানো হচ্ছে দেবতার কোপানলের ভয়। এইসব খেলা ও মেলার জন্য মাঠের জন্য আবেদন করতেই বিজেপি নেতৃত্ব জানতে মাঠ আগেই বুকড হয়ে আছে। এমন অবস্থায় রথের জন্য কোচবিহার শহরে মাঠ খুঁজতে গিয়ে কার্যত নিরাশ হচ্ছেন বিজেপির নেতারা।

তবে বিজেপির তরফ থেকে জানানো হচ্ছে, আগামী ৭ ডিসেম্বর রথযাত্রা হচ্ছেই। মাঠ না পাওয়া গেলে রাস্তাতেই সভা হবে। এ প্রসঙ্গে,কোচবিহার জেলা বিজেপির সভাপতি মালতী রাভা বলেন, “উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী ও তাঁর ছেলে ছলচাতুরি করে আমাদের রথ আটকাতে চাইছেন। তাঁরা মেলা আর খেলার জন্য সব মাঠ বুক করে নিয়েছেন। আমরা তাও মাঠের খোঁজ করছি।”

অন্যদিকে দেবতার ভয় দেখিয়ে উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, “কোচবিহারের প্রাণের ঠাকুর মদন মোহন। এই শহরে মদন মোহন রথে চড়ে। বিজেপি রথযাত্রার উদ্যোগ নেওয়ায় এমনিতেই তিনি রুষ্ট হয়েছেন। এরপরেও যদি রথযাত্রা করা হয় তবে মদন মোহনের অভিশাপে বিজেপি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। রাসমেলা থামিয়ে বিজেপির রথযাত্রার অনুমতি দেওয়া যায় না।”

পাশাপাশি তাঁর পুত্র কোচবিহার জেলা বিদ্যালয় ক্রীড়া সংসদের কার্যনির্বাহী সভাপতি তথা কোচবিহার জেলা পরিষদের সদস্য পঙ্কজ ঘোষ বলেন, “১ থেকে থেকে ১০ ডিসেম্বর শহরের মাঠগুলিতে বিভিন্ন ক্রীড়া কর্মসূচি আগেই স্থির হয়েছে। স্কুল ক্রীড়াগুলি ওই সময়ে হবে।”

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য,আগামী ৭ ডিসেম্বর রথের সূচনা করতে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এর কোচবিহারে আসার কথা। এমন অবস্থায় মাঠের অনুমতি না পেয়ে বিজেপি শিবির কার্যত দিশেহারা অবস্থায় রয়েছে। কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়ে গেছে অনেক আগেই কিন্তু তা কোথা থেকে শুরু হবে এখনও তাই ঠিক হয়নি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

প্রাথমিকভাবে বিজেপি স্থির করেছিল, মদন মোহন বাড়িতে পুজো দিয়ে রাসমেলা ময়দান থেকে রথযাত্রা শুরু করবে। কিন্তু রাসমেলা চলার জন্য সেই অনুমতি মেলেনি। তাছাড়া শহরের অন্য মাঠগুলি স্কুলের বার্ষিক ক্রীড়ার জন্য বুকড হয়ে রয়েছে। যার ফলে বিজেপির রথ যাত্রার সভা কার্যত এখনো বিশবাঁও জলে।এদিকে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিজেপির কর্মসূচি আটকাতেই শাসকদল এমন চাল দিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!