এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > ঝুলি থেকে বেরিয়েই পরল বিড়াল। চাইলেই ভারত ভাগ করতে পারবেন – দাবি ফারুক আব্দুল্লার

ঝুলি থেকে বেরিয়েই পরল বিড়াল। চাইলেই ভারত ভাগ করতে পারবেন – দাবি ফারুক আব্দুল্লার

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে গিয়ে গত রবিবার জম্মু-কাশ্মীরের কাঠোয়াতে জনসভা করে ফারুক আব্দুল্লা এবং মেহেবুবা মুফতির পরিবারকে দেশ ভাঙ্গার কারিগর হিসেবে উল্লেখ করে শোরগোল তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আর প্রধানমন্ত্রী এহেন দাবিকে ঘিরেই শোরগোল পড়ে যায় জাতীয় রাজনীতিতে। তবে এবার প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পাল্টা সোমবার শ্রীনগরের নির্বাচনী জনসভা থেকে নিজের বক্তব্য পেশ করে তীব্র বিতর্ক বাধিয়ে দিলেন সেই ন্যাশনাল কনফারেন্সের সভাপতি ফারুক আব্দুল্লা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত রবিবার ফারুক আব্দুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতির পরিবারের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদী বলেন, “তিন প্রজন্ম ধরে জম্মু ও কাশ্মীরকে শোষণ করেছে এই দুটো পরিবার। তবে তাদের ভারত ভাগের চক্রান্তকে আমি কখনোই সফল হতে দেব না।”

আর নরেন্দ্র মোদির এই বক্তব্যটির পাল্টা জবাব দিয়ে সোমবার শ্রীনগরের নির্বাচনী জনসভা থেকে ফারুক আবদুল্লাহ বলেন, “আমাদের দল সব ধর্মের মানুষের অধিকার রক্ষার লড়াই করে আসছে। আগামী দিনেও তাই করবে। উনি অভিযোগ করছেন যে, আব্দুল্লার পরিবার এইদেশ ভাঙার চেষ্টা করছে। আমি বলি, আমাদের পরিবার যদি ভাঙতে চাইত, তাহলে ভারতকে অনেকদিন আগেই ভেঙে দিতেই পারত।” আর ফারুক আবদুল্লার এহেনে মন্তব্যকে ঘিরেই এবার শুরু হয়েছে তীব্র বিতর্ক।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এদিকে এদিনের এই সভা থেকে 1996 সালের কথা উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদিকে কটাক্ষ করে ফারুক আবদুল্লাহ বলেন, “মোদির মনে রাখা উচিত 1996 সালে কাশ্মীরের নির্বাচনের সময় যখন কেউ দাঁড়াতে চাইছিল না, তখন আমার সহকর্মীরা বার বার নির্বাচনে দাঁড়াতে বারণ করলেও আমি তা শুনিনি। কারণ তারা যে সমস্যায় ছিলেন তা সমাধানের চেষ্টা করার জন্য দেশের পতাকা আমিই একমাত্র তুলে ধরেছিলাম।”

পাশাপাশি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং রাষ্ট্রদ্রোহ আইন আরও কড়া হবে কদিন আগে বিবৃতি দিলে এদিন সেই প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন ফারুক আব্দুল্লা। সব মিলিয়ে এবার প্রধানমন্ত্রীর মন্তব্যের পর পাল্টা মন্তব্য করে “তিনি যদি চাইতেন তাহলে অনেকদিন আগেই ভারত ভেঙে দিতে পারতেন” বলে বক্তব্য পেশ করে বিতর্কে জড়িয়ে পড়লেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা ফারুক আব্দুল্লা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!