এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কলকাতার নামী সংবাদপত্রের হেভিওয়েট সাংবাদিক কি এবার তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায়? জল্পনা চরমে

কলকাতার নামী সংবাদপত্রের হেভিওয়েট সাংবাদিক কি এবার তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায়? জল্পনা চরমে

লোকসভা ভোটের দিন যত এগিয়ে আসছে, ততই রাজ্যের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলির প্রার্থী তালিকা নিয়ে জল্পনা বাড়ছে। বাংলার ৪২ টি আসনের মধ্যে গতবার ৩৪ টি আসনই গিয়েছিল শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের দখলে। তা সত্ত্বেও, আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে সবথেকে বেশি জল্পনা শাসকদলের প্রার্থী তালিকা ঘিরেই।

কারণ, শাসকদলের অন্দরে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, গতবারের বিজয়ী ৩৪ জন সাংসদই যে এবারেও টিকিট পাবেন – তা কিন্তু নয়। এর প্রথম কারণ, বেশ কিছু সাংসদের পারফরম্যান্সে দলনেত্রী খুশি নন, কিছুজনের গায়ে লেগেছে দুর্নীতির দাগ আবার কিছু জায়গায় একাধিক টিকিট প্রত্যাশী। আর তাই শাসকদলের প্রার্থী তালিকা নিয়ে জল্পনা চরমে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এরই মাঝে সূত্রের খবর, কলকাতার এক নামী সংবাদপত্রের (কারোর কারোর মতে বাংলার ১ নম্বর সংবাদপত্র) এক নামী সাংবাদিক এবার থাকতে চলেছেন শাসকদলের প্রার্থী তালিকায়। এই সাংবাদিক বাঙালি হলেও থাকেন দিল্লিতে, কারণ তিনি রাজধানীর রাজনৈতিক খবরই ‘কভার’ করে থাকেন। এই সাংবাদিক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ হওয়ার পাশাপাশি বিজেপি শীর্ষ নেতা লালকৃষ্ণ আদবানীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলেও পরিচিত।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই তিনি ওই সংবাদপত্রে নিজের পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু, এখনও সেই পদত্যাগপত্র গৃহীত হয় নি। তবে, এই সাংবাদিক এবার শাসকদলের টিকিট পাচ্ছেন – তা একপ্রকার নিশ্চিত বলেই দাবি ঘাসফুল শিবিরের অন্দরমহলে ঘোরাফেরা করা একাংশের। ওই সূত্রের দাবি, এই সাংবাদিক সম্ভবত যাদবপুর কেন্দ্র থেকে টিকিট পেতে চলেছেন। এখন দেখার শেষপর্যন্ত তৃণমূল নেত্রীর তালিকা থেকে এই সাংবাদিকের নাম প্রকাশিত হয় কিনা – আর হলেও তা কোন কেন্দ্র থেকে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!