এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > বিশাল অঙ্কের জরিমানার মুখে ফেসবুক – আপনার প্রিয় সোশ্যাল মিডিয়ার কীর্তি জানলে চমকে যাবেন

বিশাল অঙ্কের জরিমানার মুখে ফেসবুক – আপনার প্রিয় সোশ্যাল মিডিয়ার কীর্তি জানলে চমকে যাবেন

Priyo Bandhu Media

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল ট্রেড কমিশন (এফটিসি) ফেসবুককে ৫ বিলিয়ন ডলার জরিমানা করেছে ( ভারতীয় টাকায় ৩,৪২,৮০,১৫,০০,০০০ বা ৩৪ হাজার কোটি টাকারও বেশি)। প্রসঙ্গত, রাজনৈতিক পরামর্শদাতা হিসাবে কাজ করা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ৫ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিয়েছিল আমেরিকার নির্বাচনের সময়, যা সেই নির্বাচনকে প্রভাবিত করতে সাহায্য করে বলে অভিযোগ ওঠে। আর কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে সেই তথ্য সরবরাহ করার অভিযোগ ওঠে ফেসবুকের বিরুদ্ধে।

আর এই অভিযোগের সত্যতা প্রমান হতেই, গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগে ফেসবককে এই বিপুল পরিমান টাকার জরিমানা দিতে হবে বলে জানা গেছে। যে কমিশন ফেসবুকের বিরুদ্ধে এই তদন্ত করছিল, সেখানে ৩-২ ভোটে এই ফলাফল ফেসবুকের বিরুদ্ধে গেছে বলে আমেরিকার মিডিয়া সূত্রে জানা গেছে। তবে এখনও সরকারি ভাবে এই ঘোষণা আসে নি, যে কোন মুহূর্তে মার্কিন বিচার বিভাগ এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করে দিতে পারে বলে জানা গেছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত, ফেসবুকের বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত তথ্য ‘চুরি’ করে তা মোটা অঙ্কের বিনিময়ে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠার পর ২০১৮ সালের মার্চ মাসে এফটিসি এই নিয়ে তদন্ত শুরু করে। দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকা ফাঁস করে দেয় যে, রাজনৈতিক পরামর্শদাতা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা ৫ কোটি ফেসবুক ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুকের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়ে তা অসদুপায়ে ব্যবহার করেছে। উল্টোদিকে, ফেসবুক ২০১২ সালেই ঘোষণা করেছিল, ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য আরও গোপনীয়তার সঙ্গে রক্ষা করার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ নেবে।

এফটিসি তদন্ত করে দেখছিল, এই চুক্তি লঙ্ঘন করা হয়েছে কিনা। কিন্তু তদন্তে উঠে এসেছে মারাত্মক তথ্য, যেখানে দেখা যাচ্ছে ফেসবুক নিজেই ব্যবহারকারীদের তথ্য বিক্রি করে দিয়েছে মোটা টাকার বিনিময়ে – বলে মার্কিনি মিডিয়া রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, এই জরিমানা সত্যি সত্যিই ফেসবুকের উপর চাপানো হলে তা প্রযুক্তি খাতে অনুমোদিত কোনও সংস্থায় এফটিসি কর্তৃক আরোপিত সর্বোচ্চ শাস্তি হতে চলেছে। একই সঙ্গে যে যে পদ্ধতিতে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য অন্যদের সঙ্গে শেয়ার করে সেই নিয়েও তদন্ত করে দেখা হবে বলে জানা গেছে। ফলে, সবমিলিয়ে বড়সড় অস্বস্তির মুখে ফেসবুক, এই ঘটনার পর ফেসবুক ব্যবহারের সংখ্যা কমে যাবে বলেও মনে করা হচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!