এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে খুনের হুমকি, গ্রেপ্তার না হওয়ায় উঠছে প্রশ্ন

ফেসবুকে মুখ্যমন্ত্রীর নাম করে খুনের হুমকি, গ্রেপ্তার না হওয়ায় উঠছে প্রশ্ন

সম্প্রতি ফেসবুকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম করে খুনের হুমকি দিতে দেখা গিয়েছিল শিক্ষক নির্মাল্য চক্রবর্তীকে। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতি তোলপাড় হয়ে উঠেছিল। কিন্তু “মমতার” নাম করে খুনের হুমকি দিলেও এখনও পর্যন্ত সেই শিক্ষক গ্রেফতার না হওয়ায় অনেকের মনেই নানা প্রশ্ন তৈরি হতে শুরু করেছে।

জানা গেছে, কৃষ্ণগঞ্জের খারবাগান প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক নির্মাল্য চক্রবর্তী তাঁর ফেসবুকে সুজিত কুমার দে নামে একজনের পোস্টে কমেন্ট করেছেন। যেখানে তিনি লেখেন, “প্রাণ চলে গেলে তারপর টিআরপি? আমি…মমতাকে মার্ডার করে দেব। কে কে সাথ দেবেন বলুন!” আর এই ঘটনার পরই চারিদিকে হৈ চৈ পড়ে যায়। শিক্ষক নির্মাল্য চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে কৃষ্ণগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন কৃষ্ণগঞ্জ ব্লক তৃণমূলের যুব সভাপতি গোপালচন্দ্র ঘোষ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

যদিও বা প্রথম থেকেই তিনি এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নন বলে অস্বীকার করেন সেই অভিযুক্ত শিক্ষক নির্মাল্য চক্রবর্তী। যেখানে তিনি বলেন, “তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নয়, আসলে মমতাময়ী বোঝাতে চেয়েছিলেন।”

তবে নির্মাল্যবাবু যাই বলুন না কেন, বুধবার জেলার প্রাথমিক স্কুল পরিদর্শক সেই খারবাগান স্কুলে গিয়ে নির্মাল্যবাবুর কাছে গোটা বিষয়টি জানতে চাইলেও তাকে সেদিন স্কুলে পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে কৃষ্ণগঞ্জের মহকুমা স্কুল পরিদর্শকের দপ্তরে তাকে ডেকে পাঠানো হলে জেলা পরিদর্শক কঠিন ভাষায় সেই নির্মাল্য চক্রবর্তীকে সতর্ক করে দেন।

আর এরপরই সেই শিক্ষক লিখিতভাবে ক্ষমা চেয়ে নেন। যেখানে তিনি বলেন, “আমার যদি কোথাও কোনো ভুল হয়ে থাকে, তাহলে আমি ক্ষমাপ্রার্থী।” তবে এখনও পর্যন্ত সেই অভিযুক্ত শিক্ষক গ্রেফতার না হওয়ায় অনেকেই প্রশ্ন তুলতে ছাড়ছেন না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!