এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ৯ বছর সাসপেন্ড রাখার পর জমি কেলেঙ্কারিতে জড়িত প্রাক্তন বিধায়ককে ফেরাচ্ছে তৃণমূল

৯ বছর সাসপেন্ড রাখার পর জমি কেলেঙ্কারিতে জড়িত প্রাক্তন বিধায়ককে ফেরাচ্ছে তৃণমূল

Priyo Bandhu Media

৯ বছর সাসপেন্ড রাখার পর জমি কেলেঙ্কারিতে জড়িত রাজারহাটের প্রাক্তন বিধায়ক তন্ময় মন্ডলকে ঘরে ফেরাচ্ছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। ২০০১ সালে রাজারহাট বিধানসভা কেন্দ্র থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিটে বিধায়ক হন তন্ময়বাবু। সেই সময় দীর্ঘদিন ধরেই তিনি রাজারহাটের তৃণমূল কংগ্রেস ব্লক সভাপতি ছিলেন। কিন্তু এরপরেই বেদিক ভিলেজ এবং নিউটাউনের একের পর এক জমি-কেলেঙ্কারিতে তাঁর নাম জড়ায়। শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হিসাবে ২০০৯ সালে তাঁকে দল থেকে সাসপেন্ড করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কিন্তু সেই তন্ময়বাবুকেই এবার আনুষ্ঠানিকভাবে দলে ফিরিয়ে নিচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। উত্তর ২৪ পরগনা তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক সংবাদমাধ্যমকে তন্ময়বাবুর পুনরায় তৃণমূলে ফেরা প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে দলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সীর কাছে আবেদন করেছিলেন তন্ময়বাবু, তাই দলে ফিরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। অন্যদিকে, রাজারহাট-গোপালপুরের যুব সভাপতি দেবরাজ চক্রবর্তী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, আমার সঙ্গে তন্ময়বাবুর ভাল সম্পর্ক, অনেক দিন ধরেই উনি যোগাযোগ রাখছেন। তৃণমূল সূত্রের খবর, আগামীকাল উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে জেলা তৃণমূলের দফতরে জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের উপস্থিতিতে তন্ময়বাবু তৃণমূলে যোগদান করবেন। তবে জমি কেলেঙ্কারিতে নাম জড়ানো এই নেতাকে দলে ফেরানো নিয়ে ইতিমধ্যেই দলীয়স্তরে বেশ গুঞ্জন, যদিও এ নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে রাজি নয় কেউই।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!