এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিধানসভার আগেই কি প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বিজেপিতে? সোশ্যাল মিডিয়া বার্তায় জল্পনা!

বিধানসভার আগেই কি প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বিজেপিতে? সোশ্যাল মিডিয়া বার্তায় জল্পনা!

লোকসভা নির্বাচনে সব বিরোধীদের ধুয়েমুছে সাফ করে কেন্দ্রে দ্বিতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসেছেন নরেন্দ্র মোদী। আর তারপর থেকেই একদিকে যেমন বিরোধী অনৈক্য স্পষ্ট হয়ে গেছে, পাশাপাশি অন্য্ বিরোধী দল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লেখানোর ধুম পরে গেছে হেভিওয়েট নেতাদের মধ্যে। আর এর মধ্যে সবথেকে খারাপ অবস্থা কংগ্রেসের। লোকসভায় পরাজয়ের পর, দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন খোদ সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী।

এই অবস্থায় সোনিয়া গান্ধীকে সভাপতি করে ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীকে পিছন থেকে তুলে এনে সংগঠন মজবুত করে গেরুয়া ঝড় ঠেকানোর মরিয়া প্রচেষ্টায় হাত-শিবির। কিন্তু, তা কতখানি কাজে দেবে তাই নিয়ে সন্দিহান বড়বড় কংগ্রেস সমর্থকরাও। কেননা, বর্তমান কঠিন পরিস্থিতিতে দলের শীর্ষ নেতারা যেভাবে মোদী-প্রশংসায় পঞ্চমুখ হচ্ছেন তাতে, সিঁদুরে মেঘ দেখছেন তাঁরা। আর এবার কংগ্রেস সমর্থকদের অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে দিলেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ও দক্ষিণ-মুম্বইয়ের প্রাক্তন সাংসদ মিলিন্দ দেওড়া।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রধানমন্ত্রী মোদীকে ঘিরে তাঁর পোস্ট নিয়ে এখন তুমুল জল্পনা জাতীয় রাজনীতিতে। আমেরিকায় ‘মোদী-ধামাকার’ প্রশংসা করে মিলিন্দ দেওড়া নিজের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেলে লেখেন, প্রধানমন্ত্রী মোদির হিউস্টন বক্তৃতা ভারতের কূটনৈতিক শক্তি প্রদর্শনের অন্যতম একটি নিদর্শন। ভারত-আমেরিকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক মজবুত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছে আমার বাবা মুরলিভাই (মুরলি দেওড়া)। ডোনাল্ড ট্রাম্প যেভাবে ইন্দো আমেরিকানদের অবদানের প্রশংসা করেছেন, তাতে আমরা গর্বিত।

আর মিলিন্দ দেওড়ার এই ট্যুইটের পাল্টা প্রত্যুত্তর দিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লিখেছেন, ধন্যবাদ মিলিন্দ দেওড়াজি। মার্কিন মুলুকের সঙ্গে সখ্যতা বজায় রাখতে আমার বন্ধু, প্রয়াত মুরলি দেওড়াজি, যে কাজ করেছে, তা সঠিক ভাবে তুমি তুলে ধরেছ। দু’দেশের মধ্যে এই বন্ধুত্ব চাক্ষুষ করতে পারলে উনি সত্যি খুশি হতেন। মার্কিন প্রেসিডেন্টের আতিথেয়তা এক কথায় অনবদ্য। আর এরপরেই তুমুল জল্পনা – বিরোধী শিবিরের প্রধান মুখের এমন প্রশংসা করে – তিনি কি গেরুয়া শিবিরের দিকে পা বাড়াতে চলেছেন?

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর, প্রদেশ সভাপতির পদ ছাড়েন তিনি। এদিকে, সামনেই মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচন – সেখানেও কংগ্রেস-এনসিপি জোট নিয়ে খুব একটা আশা দেখছেন না দলীয় সমর্থকরা। বিজেপি-শিবসেনা জোটে কয়েকটি আসন নিয়ে, এখনও সমাধান সূত্র না মিললেও, সবমিলিয়ে অনেকটাই এগিয়ে। এমনকি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের সমীক্ষায় এগিয়ে রাখছে বিজেপি-শিবসেনা জোটকে। আর এইরকম কঠিন পরিস্থিতিতে বিজেপির শীর্ষমুখের প্রশংসা করে দলবদলের জল্পনা উস্কে দিলেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি মিলিন্দ দেওড়া।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!