এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নির্বাচনের মুখে উদ্ধার হচ্ছে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র – চিন্তার ভাঁজ বাড়ছে পুলিশ-প্রশাসনের কপালে

নির্বাচনের মুখে উদ্ধার হচ্ছে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র – চিন্তার ভাঁজ বাড়ছে পুলিশ-প্রশাসনের কপালে


সামনে লোকসভা নির্বাচন। আর সেই লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রকে ঘিরে ছড়াতে শুরু করেছে প্রবল আতঙ্ক। সূত্রের খবর, বিগত এক বছরে মুর্শিদাবাদ জেলা থেকে প্রায় 381 টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং 853 টি গুলি উদ্ধার হয়েছে। যার বেশিরভাগটাই জমা করা হয়েছে জেলার বিভিন্ন থানার মালখানায়।

জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্ন থানার মালখানায় মজুত থাকা প্রচুর বেআইনি অস্ত্রকে নিষ্ক্রিয় করার জন্য তা ইন্ডিয়ান অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিকে হস্তান্তর করতে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ তাতে রাজি না হওয়ায় সেই সব আগ্নেয়াস্ত্র হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে নিষ্ক্রিয় করতে বেশ কিছুটা সময় লেগেছিল। তাই এবারে সেই সমস্ত মামলাকে সম্পন্ন করে সেই অস্ত্রগুলিকে নিষ্ক্রিয় করার চিন্তাভাবনা শুরু করা হয়েছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, গত সোমবার সুতি থানার পুলিশ অস্ত্রকারবারিদের তিন সদস্যের দলকে গ্রেফতার করে। যেখানে ধৃত মহাবীর ঘোষ, দশরথ ঘোষ এবং প্রকাশ দাসের কাছ থেকে একটি পিস্তল, একটি একনলা বন্দুক ও 26 রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়েছে। জানা গেছে, মঙ্গলবার এই ধৃতদের জঙ্গিপুর এসিজেএম আদালতে তোলা হয়।

এদিন এই প্রসঙ্গে জঙ্গিপুরের এসডিপিও প্রসেনজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “বিশেষ সূত্র মারফত খবর পেয়ে ওই কারবারীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনাটি গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে।” অন্যদিকে এই ব্যাপারে মুর্শিদাবাদ জেলার পুলিশ সুপার মুকেশ কুমার বলেন, “আদালত যা নির্দেশ দেবে সেই মতই পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।”

সব মিলিয়ে এবার লোকসভা নির্বাচনের আগে একের পর এক অস্ত্র উদ্ধার হওয়ায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ছে মুর্শিদাবাদ জেলায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!