এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অস্বস্তি বাড়ল তৃণমূলের, ইডির জেরার মুখে এই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা

অস্বস্তি বাড়ল তৃণমূলের, ইডির জেরার মুখে এই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা


সারদা কাণ্ডে দীর্ঘক্ষন জেরার মুখ থেকে শ্রীঘরে যেতে হয় তাকে। রাজনীতির ময়দান থেকে দীর্ঘদিন তার শ্রীঘরে কাটানোর স্মৃতি মাঝে মাঝে আওরেছিলেন নিজেই। কিন্তু বেশ কিছুদিন হল ফের রাজনৈতিক ময়দানে দেখা যেতে শুরু করেছে তাঁকে। আর এহেন হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রকে এবার রোজভ্যালি কাণ্ডে জেরা করার জন্য তলব করল ইডি।

সূত্রের খবর, সোমবার এই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দপ্তরে মদন মিত্রকে ডেকে দফায় দফায় জেরা করা হয়। যেখানে রোজভ্যালি কর্ণধার গৌতম কুন্ডু এবং এই সংস্থার সাথে তার কি সম্পর্ক ছিল, সেই ব্যাপারে রাজ্যের এই প্রাক্তন মন্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে শুধু মদন মিত্র নয়, এদিন সিজিও কম্প্লেক্সে বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়কেও জেরা করবার জন্য ডাকা হয়েছিল। জানা গেছে, আগামী 12 ই জুলাই সারদার একটি সংস্থার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডার এই তৃনমূল সাংসদকে উপস্থিত হওয়ার ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী এবং বর্তমান তৃণমূল সাংসদের মত দুই হেভিওয়েট শাসকদলের নেতা নেত্রীকে লোকসভা ভোটের পরেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে জেরার জন্য ডাকায় রাজনৈতিক মহলে ব্যাপক চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। বস্তুত, সম্প্রতি সারদা এবং রোজভ্যালি নিয়ে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআইয়ের পক্ষ থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয়। আর এরপরই গত শুক্রবার সল্টলেকের সিজিও কম্প্লেক্সে হাজিরা দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয় শাসকদল ঘনিষ্ঠ চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন এবং প্রাক্তন সিপিএম নেতা তথা বর্তমান কংগ্রেস নেতা লক্ষ্মণ শেঠকে।

যার জেরে অনেকের মনে সন্দেহ দানা বাঁধতে থাকে যে, তাহলে হয়ত এবার আর্থিক দুর্নীতি কান্ডের সাথে জড়িত বিভিন্ন প্রভাবশালী ব্যক্তিদের জেরার জন্য ডাকতে পারে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। আর যেমন ভাবা ঠিক তেমনি কাজ। চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন এবং লক্ষ্মণ শেঠের পর এবার শাসকদলের দুই হেভিওয়েট নেতা, নেত্রীকে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে তলব করায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন শতাব্দী রায় এবং মদন মিত্রকে জেরা করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার কাছে ঠিক কি উঠে আসে, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!