এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > অভিষেক ব্যানার্জির বিরুদ্ধে দাঁড়ানো বিজেপি প্রার্থীকে গ্রেপ্তারির নির্দেশ কমিশনকে, তীব্র চাঞ্চল্য রাজ্য-রাজনীতিতে

অভিষেক ব্যানার্জির বিরুদ্ধে দাঁড়ানো বিজেপি প্রার্থীকে গ্রেপ্তারির নির্দেশ কমিশনকে, তীব্র চাঞ্চল্য রাজ্য-রাজনীতিতে

পঞ্চম দফার নির্বাচন শেষে ষষ্ঠ দফার নির্বাচনকে ঘিরে যখন জোর প্রচার পর্বে ব্যস্ত শাসক-বিরোধী সমস্ত রাজনৈতিক দল, ঠিক তখনই এবার নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় বিপাকে পড়লেন ডায়মন্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন রায়। আর নির্বাচনের আগেই খোদ তৃণমূলের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গড়ে বিরোধী দল বিজেপি প্রার্থীর সম্পর্কে এইরূপ অভিযোগ ওঠায় এখন তীব্র চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

জানা গেছে, গত মাসে এই ডায়মন্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত ফলতা এলাকায় প্রচার করতে যান এখানকার বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন রায়। আর সেখানেই এক নাবালিকাকে তিনি যৌন নির্যাতন করেছেন বলে সেই নির্যাতিতার বাবা বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে থানায় একটি অভিযোগ করেন। আর এই ঘটনার পরই সর্বত্র শোরগোল পড়ে যায়। সূত্রের খবর, শুক্রবার সেই নাবালিকাকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় অভিযুক্ত ডায়মন্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন রায়কে গ্রেফতার করার জন্য মুখ্য নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে শিশু সুরক্ষা কমিশন।

অন্যদিকে শিশু সুরক্ষা কমিশনের এই চিঠি পাওয়ার পরই তা কমিশনের পক্ষ থেকে পুলিশের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে এই ঘটনায় বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কমিশনকে চিঠি দিয়েছেন ডায়মন্ড-হারবার লোকসভা কেন্দ্রের শিবসেনা প্রার্থী সন্তোষ কুমারও। তবে এই গোটা বিষয়ে শাসক দল তৃণমূলেরই চক্রান্তের অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। জানা গেছে, বিষয়টি জানার পরই ডায়মন্ডহারবার লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন রায় নিজের প্রচার বন্ধ রেখে, আপাতত রাজ্য নেতাদের সঙ্গে শলা-পরামর্শ করে আইনি পথে কিভাবে লড়াই করা যায় তা ঠিক করছেন।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই প্রসঙ্গে অবশ্য সংবাদমাধ্যমের তরফে নীলাঞ্জন রায়ের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করা যায় নি। সামগ্রিক ঘটনায় রীতিমত ক্ষোভে ফুঁসছে গেরুয়া শিবির। একে পঞ্চায়েত নির্বাচনে শাসকদল এখানে কোনো ভোট করতে দেয় নি, তার উপরে শাসকদলের নেতাদের দুর্নীতিতে স্থানীয় ভোটাররা এবার নাকি পদ্মফুলে উজাড় করে ভোট দিতে তৈরী বলে দাবি গেরুয়া শিবিরের। এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, “ডায়মন্ডহারবারে হেরে যাওয়ার ভয়ে বিজেপি প্রার্থী নিলাঞ্জন রায়ের মত একজন সৎ এবং সম্মানীয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে মিথ্যা কেস করেছে তৃণমূল। পুলিশের একাংশ শাসকদলের সঙ্গে যুক্ত হয়ে এই কাজ করেছে। মানুষ সঠিক সময়ে এর জবাব দেবে।”

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা বিজেপির সহ-সভাপতি সুফল ঘাটু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “গোটা রাজ্যে প্রতিদিন অসংখ্য নাবালিকা যৌন নির্যাতনের শিকার হলেও শিশু সুরক্ষা কমিশনকে কখনোই এতটা তৎপর হতে দেখা যায় না। নির্বাচনের সময় সঠিক তদন্ত না করে আচমকা এইভাবে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া পক্ষপাতিত্বেরই সামিল।” তবে বিরোধী দল বিজেপির তরফ থেকে এই ব্যাপারে শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে চক্রান্তের অভিযোগ করলেও তা সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার অস্বীকার করেছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি শুভাশিস চক্রবর্তী।

তৃণমূলের রাজ্যসভার সদস্য শুভাশিসবাবু বলেন, “বিজেপি অযথাই এই ঘটনার সঙ্গে আমাদের দলকে জড়াচ্ছে। প্রার্থীর বিরুদ্ধে কেউ ব্যক্তিগত অভিযোগ করেছে। তার ভিত্তিতে পুলিশ কেস করেছে। আর তা তদন্ত করার জন্য শিশু সুরক্ষা কমিশন নির্দেশ দিয়েছে। এর সঙ্গে তৃণমূলকে জড়ানো হচ্ছে কেন তা বুঝতে পারছি না। আসলে বিজেপি ভয় পেয়েই এসব করছে।” সব মিলিয়ে এবার নির্বাচনের আগে নাবালিকাকে যৌন হেনস্থার ঘটনায় ডায়মন্ডহারবারের বিজেপি প্রার্থী নীলাঞ্জন রায়ের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!