এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার হাইকোর্টে বড় জয় পেল স্কুল সার্ভিস কমিশন, জেনে নিন বিস্তারিত

এবার হাইকোর্টে বড় জয় পেল স্কুল সার্ভিস কমিশন, জেনে নিন বিস্তারিত

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় বারংবার অভিযোগ করে এসেছেন, শিক্ষক নিয়োগের পথে সবচেয়ে বড় প্রতিবন্ধকতা হলো একের পর এক স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে জমে ওঠা মামলা। শিক্ষামন্ত্রীর কথাতেই যেন বৃহস্পতিবার সীলমোহর দিল কলকাতা হাইকোর্ট। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগের মামলায় মামলাকারীদের আর্জি খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে জয় পেল স্কুল সার্ভিস কমিশন।

গত 8 নভেম্বর কয়েকশো চাকরি না পাওয়া প্রার্থীরা হাইকোর্টে স্কুল সার্ভিস কমিশনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন। মামলায় বলা হয়েছিল, নবম, দশম, একাদশ, দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ইন্টারভিউ চললেও নিয়োগ করা যাবেনা। এ ব্যাপারে স্থগিতাদেশ জারি করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট 16 নভেম্বর পর্যন্ত।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য পুরো মামলাটি পর্যবেক্ষণ করে তার রায় দিয়েছেন। তিনি প্রশ্ন করেছেন, স্কুল সার্ভিস কমিশনের ইন্টারভিউ প্রক্রিয়ায় যদি কোনো রকম গলদ থাকে, তাহলে তার মামলা হতে এত দেরি হল কেন? এই প্রসঙ্গের ভিত্তিতেই তিনি মামলা খারিজ করে স্কুল সার্ভিস কমিশনের পক্ষে রায় দেন।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি মৌসুমী ভট্টাচার্য মামলাকারীদের আবেদন খারিজ করার পাশাপাশি, শিক্ষক নিয়োগের জন্য রেকমেন্ডেশন লেটার ইস‍্যুর ওপর যে অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ দিয়েছিলেন, তা প্রত্যাহার করে নিলেন। ফলে স্কুল সার্ভিস কমিশনের দ্বারা শিক্ষক নিয়োগে আর কোনো বাধা রইল না। হাইকোর্টের রায়ে এদিন রাজ্য শিক্ষা দপ্তরের অন্দরে স্বস্তির নিঃশ্বাস। আপাতত শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগের ব্যাপারে মনোযোগ দেবে স্কুল সার্ভিস কমিশন বলে সূত্রের খবর। সমগ্র পরিস্থিতির ওপর নজর রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!