এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার বড়সড় দুঃসংবাদ দিতে চলেছে ভোডাফোন? জোর জল্পনা

এবার বড়সড় দুঃসংবাদ দিতে চলেছে ভোডাফোন? জোর জল্পনা

টেলিকম সেক্টরে এমনিতেই চাপা গুঞ্জন চলছিল। আর সেই গুঞ্জনকে এবার প্রকাশ্যে নিয়ে এলো একটি বেসরকারি সংবাদ সংস্থা। ওই সংবাদপত্রে জানা যাচ্ছে যে ভারত থেকে এবার বৃহত্তম টেলিকম অপারেটর ভোডাফোন আইডিয়া নিজেদের ব্যবসা গোটাতে চলেছে। তবে এই রিপোর্ট যদি সত্যি হয়, তাহলে ভারতের টেলিকম সেক্টরে একটি বড়সড় পরিবর্তন আসতে চলেছে আর কিছুদিনের মধ্যেই। সম্প্রতি লাইসেন্স ফি এবং স্পেক্ট্রাম ব্যবহারের চার্জ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ভোডাফোন আইডিয়া বেশ কোণঠাসা হয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। আর তার জেরেই এই সিদ্ধান্ত বলে দাবি করছে টেলিকম সেক্টরের একাংশ।

এমনিতেই টেলিকম সেক্টরে একের পর এক চমক দিয়ে ব্যবসা চালাচ্ছে জিও নেটওয়ার্ক। ফলে প্রথম থেকেই ক্রমাগত লোকসানের সম্মুখীন হচ্ছে ভোডাফোন। তবে ব্যবসা গোটানো সংক্রান্ত ব্যাপারে ভোডাফোনের মুখপত্রের কাছে ইমেইল মারফত জানতে চাইলে সরাসরি বলে দেওয়া হয়, ভোডাফোনের কর্পোরেট যোগাযোগ গোষ্ঠীর প্রধান বেন প‍্যাডোভ্যানের সঙ্গে এই বিষয়ে যোগাযোগ করতে।

বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই টেলিকম সেক্টরে হাড্ডাহাড্ডি প্রতিযোগিতা চলছে। আর সেই প্রতিযোগিতায় চেষ্টা করেও আর টিকে থাকতে না পেরে ইতিমধ্যে লক্ষাধিক গ্রাহক হারিয়েছে ভোডাফোন আইডিয়া। ফলে মুনাফাও তাদের আসেনি সেভাবে। বর্তমানে টেলিকম সেক্টরের অলিতে-গলিতে যে গুঞ্জন কানে আসছে তা হল, ভোডাফোন তাঁর ঋণদাতাদের কাছে আবেদন জানিয়েছে, ঋণের বোঝা কমানোর জন্য।

যদিও এই গুঞ্জনটিকে সম্পূর্ণ অস্বীকার করে বুধবার একটি বিবৃতি জারি করে ভোডাফোন আইডিয়া। সেই বিবৃতিতে তাঁরা জানিয়েছে, ‘ঋণের বোঝা কমানোর ব্যাপারে ভোডাফোনের তাঁর ঋণদাতাদের কাছে আবেদনের যে খবর ইতিমধ্যেই বিভিন্ন মহলে ভেসে বেড়াচ্ছে তা সর্বৈবভাবে মিথ্যে। আমরা সর্বতোভাবে এই অভিযোগ অস্বীকার করি। এরকম কোন অনুরোধ কোন ঋণদাতার কাছে এখনো পর্যন্ত করা হয়নি।’ উল্টে ভোডাফোন আইডিয়ার কাছ থেকে শোনা গেছে, তাঁরা খুব শীঘ্রই ঋণদাতাদের অর্থ ফেরত দেবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকেও ভোডাফোন আইডিয়া কে লাইসেন্স ফি অফ স্পেক্ট্রাম ব্যবহারের চার্জ বাবদ ‘অ্যাডজাস্টেড গ্রস রেভিনিউ’ এর 28309 কোটি বকেয়া টাকা দ্রুত মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সূত্রের খবর, এর পরেই বেশ কিছুটা বিমর্ষ হয়ে পড়ে ভোডাফোন আইডিয়া কর্মকর্তারা।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পরেই দেখা যায়, শেয়ারবাজারে ভোডাফোন আইডিয়ার উল্লেখযোগ্য পারাপতন। বুধবার সকালে ভোডাফোনের শেয়ার প্রায় 3.86 এ নেমে যায়। শেয়ার সূচক নামার কারণ ও অন্যান্য অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের কারণ হিসেবে ভোডাফোনের তরফ থেকে বলা হয়, ‘এই আর্থিক ক্ষতির মোকাবিলা আমরা দ্রুতই আমাদের আইনজ্ঞের পরামর্শ নেব। সামগ্রিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করেই কোম্পানির পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করা হবে।’

তবে ভোডাফোন আইডিয়া সংক্রান্ত এই খবরটি কানে আসার সাথে সাথে টেলিকম সেক্টরে চূড়ান্ত বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে টেলিকম বিশেষজ্ঞদের দাবি, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে যে বিপুল অর্থের বোঝা ভোডাফোন আইডিয়ার ঘাড়ে চেপেছে, তা থেকেই এ ধরনের সিদ্ধান্ত তাঁরা নিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে দেশের ভোডাফোন আইডিয়ার গ্রাহক সংখ্যাও নেহাত কম নয়। এই সিদ্ধান্তের ফলে গ্রাহকরা তাদের পরিষেবা কিভাবে পাবেন, তা নিয়েও চিন্তিত সবাই। আপাতত সমগ্র পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে দেশের টেলিকম বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!