এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দুষ্কৃতী গুলিতে আক্রান্ত তৃণমূল নেতা, গ্রেপ্তার পাঁচ – ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে রায়গঞ্জ

দুষ্কৃতী গুলিতে আক্রান্ত তৃণমূল নেতা, গ্রেপ্তার পাঁচ – ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে রায়গঞ্জ

Priyo Bandhu Media

এক সপ্তাহে পরপর দুদিন! ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছে রায়গঞ্জে। জেলায় ফের হিংসার নজির। এবার গুলিবিদ্ধ এক কলেজ পড়ুয়া। আক্রান্ত যুবক নিহাল দাস শাসকদলের সক্রিয় কর্মী হিসাবেই পরিচিত,এমনটাই দাবী করলেন তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তর দিনাজপুরের জেলা সভাপতি অমল আচার্য।

গুরুতর আহত অবস্থায় নিহাল রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তদন্তে নেমে ইতিমধ্যেই পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে পাঁচজনকে। ধৃতদের মধ্যে একজন আবার নাবালক। তাকে জুভেনাইল আদালতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন রায়গঞ্জ মহাকুমা আদালতের বিচারক। এবং বাকি চার জনের জন্যে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ রয়েছে। আপাতত লক আপে রয়েছে ধৃতরা।

উল্লেখ্য,গত মঙ্গলবার রাতেও এক গুলি চলেছিল রায়গঞ্জের বন্দর এলাকায়। দুষ্কৃতিরা তৃণমূল কাউন্সিলরের স্বামীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় এমনটাই লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে থানায়। তবে তাঁর প্রাণ যায়নি বরাতজোরে। সেই আক্রমণ কেন হয়েছিল তার কিনারা করার আগেই ফের আক্রান্ত শাসকদলেরই অন্য এক কর্মী। বারবার জেলায় শাসকদলের নেতাকর্মীদের টার্গেট করা নিয়ে রীতিমতো চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিকমহলে। আতঙ্কে জেলাবাসীও।

পুলিশি তদন্তের সূত্র থেকে জানা গিয়েছে,আক্রান্ত নিহাল দাস রায়গঞ্জের সুরেন্দ্রনাথ কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ঘটনার রাতে রায়গঞ্জ শিলিগুড়ি মোড়ে একটি হোটেলের সামনে রক্তাক্ত অবস্থা নিহাল দাসকে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় থানায় খবর দেওয়া হয়।

পুলিশি তৎপরতায় তাকে রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপরই তদন্তে নেমে পাঁচ জন দুষ্কৃতিকে গ্রেফতার করে। ধৃতদের কাছ থেকে দুটো নাইন এমএম পিস্তল এবং বারো রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। কিন্তু কলেজ ছাত্রকে লক্ষ্য করে গুলি চালালো কারা? এ প্রশ্ন স্বাভাবিকভাবেই উঠছে।

এ প্রসঙ্গে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ জানিয়েছে,ঘটনার রাতে রায়গঞ্জ শিলিগুড়ি মোড়ের এক হোটেল থেকে খাওয়া-দাওয়া সেরে বেরোনোর সময় কয়েকজন যুবকের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় নিহালের। বচসা চলাকালীনই নিহালকে লক্ষ্য করি গুলি চালায় ওই যুবকরা। নিহালের পায়ে গুলি লাগায় গুরুতর জখম হন তিনি। তারপর তারা ওখান থেকে চম্পট দিলেও পরে তাদের এলাকার একটি জলসাতে দেখা গিয়েছে বলেও অভিযোগ রয়েছে। কড়া জেরার চাপে ধৃতরা মুখ খুলতে বাধ্য হবে। খুন শীঘ্রই এই গুলি করার কারণ সামনে আসবে বলেই আশ্বাস দিয়েছেন রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

উল্লেখ্য,জেলায় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা লাগাতার হিংসার শিকার হচ্ছেন এটা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় শাসকদলের কর্মীরা। যাদের বিরুদ্ধে বিরোধীরা সন্ত্রাসের রাজনীতি করার অভিযোগে সরব,তাঁরাই সন্ত্রাসের শিকার এবার। স্বাভাবিকভাবেই তৃণমূল এবার অভিযোগে আঙুল তুলবে বিরোধীদের দিকে। এবং লোকসভা ভোটের আগে এই ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে জনসংযোগ বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নেবে বলেই মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!