এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > দুর্গাপুজোর আবহে বাঙালির মন আরও বেশি করে পেতে রণকৌশল তৈরি গেরুয়া শিবিরের – জেনে নিন বিস্তারিত

দুর্গাপুজোর আবহে বাঙালির মন আরও বেশি করে পেতে রণকৌশল তৈরি গেরুয়া শিবিরের – জেনে নিন বিস্তারিত


লোকসভা নির্বাচনের পর থেকে আগামী বিধানসভা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টি। 19 সালের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় 18 টি আসন লাভ করে পদ্ম শিবির এখন রীতিমতো ঘাড়ে নিশ্বাস ফেলছে 22 টি আসন পাওয়া রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের।

কিন্তু যে হিন্দুত্বের উপরে সর্বভারতীয় প্রেক্ষাপটটি বিজেপির স্তম্ভ রাখা আছে, বাংলার ক্ষেত্রেও সেই স্তম্ভকে বাদ দেয়নি ভারতীয় জনতা পার্টি। মূলত হিন্দুত্বের এজেন্ডা নিয়েই লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল বঙ্গ বিজেপি। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীকেও তৃণমূলের উপরে অভিযোগ করে বারবার বলতে শোনা যায়, রাজ্যের দুর্গাপূজায় বাধা দিচ্ছে শাসকদল। তাই অত্যন্ত সহজভাবে অনুমান করা যায়, লোকসভা নির্বাচনের সাফল্যের পর সেই ভারতীয় জনতা পার্টি 21 সালের বিধানসভা নির্বাচনকে মাথায় রেখে বাংলায় সবচাইতে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান দুর্গাপূজাকে লক্ষ রাখবে।

এই বছর দুর্গাপূজায় বঙ্গ প্রয়াস নামে একটি সংগঠন গড়ে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের বারোয়ারি ক্লাব এবং আবাসনের দুর্গাপুজো কমিটিগুলোর কাছে প্রতিযোগিতায় যোগ দেওয়ার আবেদন রাখবে রাজ্যের গেরুয়া শিবির। এই প্রতিযোগিতার ট্যাগলাইন হবে “পদ্ম ছাড়া কি পুজো হয়!”। জানা গেছে, যে সমস্ত ক্লাব বা পুজো কমিটি এই আবেদনের সাড়া দেবে তাদের মধ্য থেকে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থানাধিকারীদেরকে পুরস্কৃত করা হবে।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারতীয় জনতা পার্টি দুর্গাপুজো নিয়ে তোড়জোড় করলেও রাজ্যের শাসক দলের কাছে পুজোর বড় বড় ক্লাবগুলোর উপরে কর্তৃত্বের দিক দিয়ে অনেক পিছিয়ে রয়েছে পদ্মফুল শিবির। তাই নিজেদেরকে পুজোর কাছাকাছি নিয়ে আসতে এই নয়া কৌশল গ্রহণ করেছে বঙ্গ বিজেপি বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। এদিন এই বিষয়ে রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, “আমরা চাইব জাতীয়তাবাদী চিন্তায় উদ্বুদ্ধ এবং বাংলা সংস্কৃতি রক্ষা করতে সক্ষম পূজো কমিটিগুলো এই প্রতিযোগিতায় যোগ দিন।”

বিশেষজ্ঞদের মতে, বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ সাংবাদিকদেরকে জানিয়েছিলেন, এই রাজ্যে বহু পুজো উদ্বোধন করতে আসতে চলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি অধ্যক্ষ অমিত শাহ। কিন্তু পুজোর আর অল্প কয়েক দিন বাকি থাকলেও এখনও পর্যন্ত ঠিক কোন কোন ক্লাবের পূজো অমিত শাহ উদ্বোধন করতে আসছেন, তা জানাতে পারেনি বঙ্গ বিজেপি। তাই এই ব্যাপারে স্পষ্ট যে, ক্লাবগুলোতে সেভাবে নিজেদের প্রভাব জমাতে সক্ষম হননি দিলীপবাবুরা। তাই বঙ্গ প্রয়াস নামে সংগঠনকে কাজে লাগিয়ে রাজ্যের পুজো কমিটিগুলোকে হাত করতে পারে কিনা গেরুয়া শিবির, আর কোনো বড় পুজো মন্ডবে উদ্বোধক হিসেবে দেখা যায় কিনা ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি অধ্যক্ষ অমিত শাহকে, সেদিকেই নজর সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!