এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দুর্গাপূজা মিটতেই রাজ্যজুড়ে রথযাত্রায় ঝড় তুলতে প্রস্তুতি শুরু গেরুয়া শিবিরের অন্দরে

দুর্গাপূজা মিটতেই রাজ্যজুড়ে রথযাত্রায় ঝড় তুলতে প্রস্তুতি শুরু গেরুয়া শিবিরের অন্দরে

সামনেই 2019। আর এই 2019 এই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের অগ্নিপরীক্ষা। তাই হাতে থাকা আর কটা দিন হেলায় ফেলে নষ্ট করতে চাইছে না বঙ্গের গেরুয়া শিবিরের নেতারা। উৎসবের মরশুম প্রায় শেষ। তাই এবারে সেই লোকসভা ভোটকে কেন্দ্র করে রাজ্যে ফের গেরুয়া ঝড় তুলতে রথযাত্রাকেই পাথেয় করে তুলতে চাইছে বিজেপি নেতৃত্ব। জানা গেছে আগামী ডিসেম্বর থেকে শুরু বিজেপির এই রথযাত্রা প্রায় দেড় মাস ধরে পশ্চিমবঙ্গের 42 টি লোকসভা কেন্দ্রে প্রদক্ষিণ করবে। কিন্তু ঠিক কোন কোন জায়গা থেকে শুরু হবে বিজেপির এই রথযাত্রা?

সূত্রের খবর; ৩ ডিসেম্বর কোচবিহার; 5 ডিসেম্বর সাগর এবং 7 ডিসেম্বর তারাপীঠ থেকে চলবে বিজেপির এই রথ। আর এই প্রতিটি কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ এর কিন্তু দেশের বেশকটি রাজ্যের বিধানসভা ভোট পড়ে যাওয়ায় সেই উপস্থিতির সম্ভাবনা ক্ষীণ হতে শুরু করেছে। তবে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের পাখির চোখ যেহেতু এখন এই বাংলা তাই তিনি যে এই রথযাত্রার কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকবেন তা একপ্রকার নিশ্চিত বঙ্গের বিজেপি নেতারা।

অন্যদিকে নিজের রাজ্য মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা ভোট নিয়ে এখন চরম ব্যস্ত বাংলার বিজেপি পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয়। তাই তাকে সরিয়ে এখন বাংলার সংগঠন দেখার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিজেপি নেতা অরবিন্দ মেননকে। আর এইসব নিয়েই ভবিষ্যৎ রণনীতি ঠিক করতে আজ একটি বিশেষ বৈঠক ডেকেছে বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। সূত্রের খবর; এ বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন রাজ্য বিজেপি সহ পর্যবেক্ষকের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা অরবিন্দ মেনন; বিজেপির কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক শিব প্রকাশ সহ অন্যান্য নেতারা। জানা গেছে; মূলত রথযাত্রার রুট ম্যাপ; প্রচার; কেন্দ্রীয় সরকারের জনমুখী প্রকল্পগুলো কতটা মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায় সেই ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো  করুন এই লিঙ্কেখবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক

অন্যদিকে বিজেপির এই রথযাত্রাকে কেন্দ্র করে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে যে দলীয় কর্মীদের ওপর আক্রমণ হবে সেই ব্যাপারে আগাম আচ করে নিজেদের রণনীতি তৈরি করছে বিজেপি নেতৃত্ব। আর সেই কারণে রাজ্যের যে সমস্ত জেলায় সংগঠনের ভিত এখনো মজবুত নয় সেই জেলাগুলিতে বাড়তি নজর দিতে চায় বঙ্গের বিজেপি নেতারা। সব মিলিয়ে আজকের বিজেপির এই বৈঠক অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মত রাজনৈতিক মহলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!