এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > মুর্শিদাবাদের ডোমকলে তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনায় দলীয় নেতার দিকেই অভিযোগ পরিবারের

মুর্শিদাবাদের ডোমকলে তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনায় দলীয় নেতার দিকেই অভিযোগ পরিবারের

লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে যখন রাজ্য রাজনীতিতে শাসক-বিরোধী তরজা অব্যাহত, ঠিক তখনই মুর্শিদাবাদের ডোমকলে খুন হতে হল শাসকদলের নেতা আফতাব শেখকে। আর যে ঘটনাকে ঘিরে এখন সরগরম মুর্শিদাবাদের রাজনীতি। কিন্তু হঠাৎ কেন খুন হতে হল এই তৃণমূল নেতাকে তা নিয়েই এখন তৈরি হয়েছে নানা ধন্দ।

খুনের পেছনে পারিবারিক নাকি রাজনৈতিক কারণ তা নিয়েও চলছে জল্পনা। সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে পুলিশ জেরায় নিহত তৃণমূল নেতা আফতাব শেখের ছেলে দাবি করেছে যে, তার বাবার খুনের নেপথ্যে রয়েছেন রনি মোল্লা নামে এক ব্যক্তি। আর এখানেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে কে এই রনি মোল্লা? কীভাবেই বা তৃণমূল নেতা আফতাব শেখকে খুন করলেন?

সূত্রের খবর, কিছুদিন আগেই কংগ্রেস থেকে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন এই রনি মোল্লা। অন্যদিকে ডোমকলের নিহত তৃণমূল নেতা আফতাব শেখ সিপিএমের কর্মী হিসেবে পরিচিত হলেও গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগেই তিনি তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর থেকেই এলাকায় তার প্রভাব বাড়তে শুরু করে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এমনকি দলের ভেতরেও তার জনপ্রিয়তা বাড়ায় তার পেছনে অনেক শত্রু তৈরি হয়েছিল বলে দাবি নিহত তৃণমূল নেতার পরিবারের। আর এই ঘটনা থেকেই তার বাবার ওপর হামলা চালিয়ে তার বাবাকে ফেলে দিয়ে ভ্যান দিয়ে তার দেহের ওপর চালিয়ে নিয়ে গিয়ে তাকে কুপিয়ে খুন করে রনি মোল্লা বলে অভিযোগ নিহত তৃণমূল নেতা আফতাব শেখের ছেলের।

এদিকে দীর্ঘদিন ধরেই প্রাণভয় থাকলেও দলকে সমস্ত ঘটনা জানানো সত্ত্বেও দল কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে এদিন অভিমানের সুরে নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিলেন সে নিহত তৃণমূল নেতা আফতাব শেখের স্ত্রী ও দাদা। অন্যদিকে দলীয় কর্মী খুন হওয়ায় এদিন বিরোধীদের দিকেই কার্যত অভিযোগের আঙুল তুলতে দেখা গেছে শাসক দলকে।

এদিন এই প্রসঙ্গে ডোমকল পৌরসভার চেয়ারম্যান সৌমিক হোসেন বলেন, *খুন করে কোনো ভাবেই তৃণমূল কংগ্রেসকে ভয় দেখানো যাবে না। যারা এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত, তারা কেউ ছাড় পাবে না।” সব মিলিয়ে এবার লোকসভা নির্বাচনের মুখে মুর্শিদাবাদের ডোমকলে তৃণমূল কর্মী খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত মুর্শিদাবাদের রাজনীতি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!