এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > আমাদের কুকুর-ছাগল ভাবা হয়! হেভিওয়েট শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে দলের নীচুতলার ক্ষোভ

আমাদের কুকুর-ছাগল ভাবা হয়! হেভিওয়েট শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে দলের নীচুতলার ক্ষোভ

আমাদের কুকুর-ছাগল ভাবা হয়! কংগ্রেসের হেভিওয়েট শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে দলের নীচুতলার ক্ষোভ। রাজ্যে কংগ্রেস ক্রমশ ক্ষয়িষ্ণু। এক এক করে সব বিধায়ক নেতারা চলে যাচ্ছেন দল ছেড়ে হয় তৃণমূলে না হয় বিজেপিতে। এমত অবস্থায় বঙ্গে দলকে বাঁচাতে কেন্দ্রীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী ব্যাঙের পর্যবেক্ষক করেছেন তরুণ নেতা গৌরব গগৈ-কে। ইনি রাজ্যে এসেছেন আর নানা কর্মসূচি নিয়ে দলকে চাঙ্গা করতে সংগঠন বাড়াতে মরিয়া আর তাই এদিন তেমনি এক সভায় যোগ দিতে চুঁচুড়ায় এসেছিলেন তিনি। কিন্তু যা দেখলেন তাতে খুব একটা খুশি নন। এদিন তাঁর সামনেই নাম না করে আবদুল মান্নানের বিরুদ্ধে দলের নিচুতলার কর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করলেন। এদিন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক গৌরব গগৈ -এর সামনেই মইনুল হক বলেন, দলের কোনও নেতার কোনও কর্মসূচি নেই।কোনও নির্দেশ নেই,দলটাই সংগঠিত নয় । ফলে নিচুতলার কর্মীদের অনেককে দল করতে গিয়ে সংসার চালাতে অসুবিধা হচ্ছে আর এটাই ধ্রুব সত্য। এখানেই থেমে থাকেন নি তিনি

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এরপর মইনুল হক সরাসরি আবদুল মান্নানকে আক্রমণ করেন। বলেন যে একজন নেতা কর্মীদের নামই জানেন না। দেখা হলে চিনতেই পারেন না। কোনও কর্মী কথা বললে তাঁর সঙ্গে কথা বললেন না। দলের খবর নেন না। আর কারণ হলো শুধু অহংকার। কিসের অহংকার তও স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। জানান যে সেই নেতার অহংকারের কারণ হলো লালবাতি। লালবাতির অহংকার,বিরোধী দলনেতার পদের অহংকার। তিনি মনে করেন উনিই মানুষ। বাকিরা কুকুর ছানা, ছাগল ছানা, বিড়াল ছানা।’ আশ্চর্যের বিষয় চিলেদিন তাঁর বক্তব্যকে সমর্থন করেছেন বাকি দলের নিচুতলার কর্মীরাও। এই নিয়ে

গৌরব গগৈ জানান, রাহুল গান্ধী সভাপতি হবে পর থেকেই কংগ্রেসে নতুন প্রাণ এসেছে জোস্ এসেছে , কংগ্রেস নতুনভাবে তৈরি হচ্ছে। এখন কার্যকর্তাদের সঙ্গে নেতাদের সংযোগ বাড়ছে।বাংলাতেও সেই কাজকে আরও বাড়াতে আমি এখানে এসেছি। কার্যকর্তারা যেভাবে বলবেন সেভাবে দল চলবে। যা সমস্যা চলছে তা আমরা বৈঠক করে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করা হবে। দলীয় নীতি অনুযায়ী দল চলবে। কিন্তু জনকে নিয়ে এতো অভিযোগ সেই আবদুল মান্নান – এর কোনো পতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে নিচুতলার কর্মীদের এই খবব নিয়ে রিপোর্ট রাহুল গান্ধীর কাছে পৌঁছাবে কিনা বা মান্নান সাহেবের সাথেও কথা বলবেন কিনা সেই নিয়ে কিছু জানাননি কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক গৌরব গগৈ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!