এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কে দেবশ্রীকে নিয়ে গিয়েছিলেন দিল্লিতে?দিলীপ ঘোষ সামনে নিয়ে এলেন নতুন তত্ত্ব – জল্পনা ক্রমশ বাড়ছেই

কে দেবশ্রীকে নিয়ে গিয়েছিলেন দিল্লিতে?দিলীপ ঘোষ সামনে নিয়ে এলেন নতুন তত্ত্ব – জল্পনা ক্রমশ বাড়ছেই

রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে বর্তমানে তীব্র নাটকীয়তা শুরু হয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে। বর্তমানে দেবশ্রী রায়কে নিয়ে চরমে উঠেছে বাংলার দুই সাংসদের বাদানুবাদ। সম্প্রতি রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়কের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ তথা বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি বলেন, “মহুয়া মৈত্রের আবেদনে সাড়া দিয়েই রাঘদিঘির তৃণমূল বিধায়কের সঙ্গে কথা বলেছিলাম।” আর বিজেপির রাজ্য সভাপতির এই দাবির পরই তীব্র গুঞ্জন শুরু হয় রাজ্য রাজনীতিতে। তাহলে কি মহুয়া মৈত্রও দিলীপ ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন! আর এই সমস্ত প্রশ্ন যখন নানা দিকে উঠতে শুরু করেছে, তখনই দিলীপ ঘোষের দাবির কোনও সত্যতা নেই বলে জানালেন কৃষ্ণনগরের তৃনমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র।

বস্তুত, গত 14 আগস্ট বিজেপিতে নাম লেখান শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। আর তাঁদের আনুষ্ঠানিক যোগদানের সময়ে আচমকাই দিল্লিতে বিজেপির দপ্তরে উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল রায়দিঘির তৃণমূল বিধায়ক দেবশ্রী রায়কে। এরপর একবার বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের সল্টলেকের বাড়িতেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কিন্তু ঠিক কে বা কার মদতে দেবশ্রী রায় সেখানে গিয়েছিলেন, তা নিয়ে জলঘোলা হয়েছে বিস্তর। আর এবার সেই ইস্যুতে মুখ খুলেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কৃষ্ণনগরের তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের কথা মতো তিনি দেবশ্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন বলেই দাবি দিলীপ ঘোষের। তিনি বলেন, ‘মহুয়া মৈত্রের সঙ্গে আমার বিধানসভায় দেখা হয়েছিল। তখন উনি বলেন, দেবশ্রী রায় বিজেপিতে ঢুকতে পারেনি আবার তৃণমূলেও নেই। খুব টেনশনে আছে, ও কি আপনার সঙ্গে কথা বলেছে? তখন আমি বলেছি আমার সঙ্গে দেবশ্রীর কোনও কথা হয়নি। তারপর দেবশ্রী আমার বাড়ি এসেছিলেন। রাজনীতি থেকে বেশি দেবশ্রীর ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। আমি ওনাকে জিজ্ঞাসা করলাম কেন আপনি দিল্লি গেলেন, কে আপনাকে ওখানে নিয়ে গিয়েছিল?

উনি বলেন, কোনো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ওনাকে দিল্লি নিয়ে গিয়েছিল। আমি বললাম আমাকে না জানিয়ে কেন দিল্লি গেলেন, এখন যে পরিবেশ তৈরি হয়েছে তা ভাল নয়। দেবশ্রী রায়ের বিজেপিতে যোগদানের ইচ্ছা আছে। কিন্তু উনি একাধিক সমস্যার মধ্যে আছেন। তারপর আমরা দেবশ্রীর যোগদান নিয়ে কিছু ভাবিনি।”

তবে দিলীপ ঘোষের এই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন কৃষ্ণনগরের তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তিনি বলেন, “১০ মার্চের পর দেবশ্রীর সঙ্গে আর কথা হয়নি। যেদিন বিধানসভায় এসেছিলাম সেদিন সৌজন্য সাক্ষাত্‍ হয়েছিল। বাকি কে কোথায় কী বলছে বলতে পারব না। দিলীপ ঘোষের সঙ্গে সেন্ট্রাল হলে দেখা হত। দিলীপের সঙ্গে ‘হাই-হ্যালোর সম্পর্ক ছাড়া আর কিছুই নেই। তবে দেবশ্রীকে নিয়ে আমাদের কোনও কথা হয়নি।”

আর এখানেই রাজনৈতিকমহলের প্রশ্ন, মহুয়া মৈত্র যদি দিলীপ ঘোষের সমস্ত বক্তব্যকে মিথ্যে বলেই দাবি করেন, তাহলে কেন তিনি দীলিপবাবুর এহেন বক্তব্যের বিরুদ্ধে কোনরূপ উপযুক্ত ব্যবস্থা নিচ্ছেন না! কেন দীলিপবাবুর মিথ্যে বক্তব্যের বিরুদ্ধে তিনি মামলা করছেন না!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!