এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > দিনক্ষণ জানিয়ে দিয়ে রায়ের আগেই রামমন্দির বিতর্ক চরমে নিয়ে গেলেন বিজেপি সাংসদ!

দিনক্ষণ জানিয়ে দিয়ে রায়ের আগেই রামমন্দির বিতর্ক চরমে নিয়ে গেলেন বিজেপি সাংসদ!

1992 সালের রাম জন্মভূমি আন্দোলনে 6 ই ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ভেঙে তার চূড়ায় করসেবকরা গেরুয়া পতাকা তোলে। বাবরি মসজিদের জমি রাম জন্মভূমি হিসেবে দাবি করা হয়। বলা হয়, রাম জন্মভূমি আগে থেকেই ছিল। পরবর্তীতে সেই জমিতে মোগল শাসকরা মসজিদ বানিয়েছিলেন। বাবরি মসজিদ ধ্বংস নিয়ে সৃষ্টি হয় আলোড়ন।

এবং তা আদালতে গড়ায়। দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে রাম মন্দির সংক্রান্ত মামলাটি চলছে রঞ্জন গগৈ এর বেঞ্চে। তবে অযোধ্যা মামলার নিষ্পত্তি যত এগিয়ে আসছে, ততই নাটকীয় পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। এবার রাম মন্দির বিতর্ক বিতর্ককে আরেক স্তর উঁচুতে নিয়ে গেলেন বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ।

সুপ্রিম কোর্টের রায় বেরোবার আগেই বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ জানিয়ে দিলেন, আগামী 6 ডিসেম্বরের মধ্যে রাম মন্দির তৈরীর কাজ শুরু হবে এ নিয়ে দেশজুড়ে চরম বিতর্ক শুরু হয়েছে।

1992 সাল থেকেই রাম মন্দির গড়ার ব্যাপারে ঘোষণা করেছিল গেরুয়া শিবির। অযোধ্যার বাবরি মসজিদের জমিটিকে রাম মন্দিরের জমি হিসেবে চিহ্নিত করে সেখানে রাম মন্দির গড়ার ডাক দিয়েছিল বিজেপি নেতৃত্ব। কিন্তু রাম মন্দির বিতর্ক আদালতে যাওয়ার পর থেকেই গত এক দশক ধরে মন্দির প্রসঙ্গ থমকে আছে‌। সদ্যই সুপ্রিম কোর্টের মামলার শুনানি শেষ হয়েছে। সূত্রের খবর, আগামী 17ই নভেম্বরের মধ্যেই এই মামলার রায়দান হতে চলেছে।

আর তার আগেই বিতর্ক সৃষ্টি করলেন বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ। অযোধ্যা মন্দির তৈরীর প্রসঙ্গে তিনি জানালেন, ‘রাম মন্দিরের কাজ আগামী 6 ডিসেম্বর থেকেই শুরু হবে। প্রায় দেড়শ বছর ধরে এই স্হান ঘিরে বিতর্ক চলছে। অবশেষে আমরা এই মন্দির গড়ার কাজ শুরু করতে পারব।’

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

শুধু তাই নয়, সুপ্রিম কোর্টের শুনানিকে ঘিরে তিনি সুপ্রিম কোর্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ’40 দিনের শুনানি চালিয়ে এত কম সময় রায়দান করতে চলেছে কোর্ট। এই দ্রুত বিচারপ্রক্রিয়ার জন্য সুপ্রিমকোর্টকে ধন্যবাদ।’ তিনি আরো বলেন, ‘ভারতের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ থেকে ঐ মন্দির গড়ার ক্ষেত্রে বহু প্রমাণ দেওয়া আছে। শিয়া এবং সুন্নি 2 বোর্ডই রাম মন্দিরের স্বপক্ষেই কথা বলেছে।’

আর এরপরই বিতর্কিত মন্তব্য করেন বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজ। তিনি রাম মন্দির প্রসঙ্গে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, ‘আর কোন কিন্তু নয়, আমি জানি কোর্টের রায় কি হতে চলেছে তাই বলছি মন্দির গড়ার কাজ আগামী 6 ডিসেম্বর থেকেই শুরু হতে চলেছে।’

গেরুয়া শিবিরের নেতা সাক্ষী মহারাজ এর মন্তব্যকে ঘিরে আবারো রাম মন্দির বিতর্ক সাড়া পেল, এমনটাই মনে করছে দেশের রাজনৈতিক মহল।তবে এই ঘটনায় বিরোধী দলে প্রশ্ন উঠেছে, সুপ্রিম কোর্টের রায় দানের আগেই কিভাবে সেই রায়ের কথা বলে রাম মন্দির প্রসঙ্গে এতদূর এগিয়ে গেলেন বিরোধী নেতা? এমনকি রাম মন্দির তৈরীর দিনক্ষণ ঠিক করে ফেলেছেন।\

তাহলে কি সুপ্রিম কোর্ট আর বিজেপি সরকার একই মুদ্রার এপিঠ ওপিঠ? তবে এখনো পর্যন্ত সাক্ষী মহারাজের কথায় কোনো রকম প্রতিক্রিয়া জানায়নি গেরুয়া শিবির। তাই ধরে নেওয়া যায় এটি সম্পূর্ণ তাঁর নিজের মত বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ। আপাতত রাম মন্দির সংক্রান্ত মামলায় সুপ্রীম কোর্টের রায়ের দিকেই তাকিয়ে আছে দেশের সমস্ত রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!