এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > “দিল্লিতে বিজেপিতে যোগদান” নিয়ে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় নেতা

“দিল্লিতে বিজেপিতে যোগদান” নিয়ে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় নেতা

লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপির অভাবনীয় ফলাফল হওয়ার পরই দিকে দিকে বিভিন্ন বিরোধী দলের নেতাকর্মীরা গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেছেন। আর এক্ষেত্রে প্রায় সকলেই দিল্লিতে গিয়ে বিজেপির সদর দপ্তর থেকে নিজেদের হাতে বিজেপির পতাকা তুলে নিচ্ছেন। যা নিয়ে কিছুদিন আগেই ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিল গেরুয়া শিবিরের একাংশকে।

যেখানে অনেকের বক্তব্য ছিল যে, দিল্লিতে এই যোগদান পর্ব সম্পন্ন হলেও রাজ্য এবং জেলার নেতারা এই সম্পর্কের ঠিকভাবে অবগত হচ্ছেন না। তাই দিল্লিতে নয়, রাজ্যেই এই যোগদান পর্ব সম্পন্ন করতে হবে। যার কারণ হিসেবে দলে যাতে বেনোজল না ঢোকে এবং রাজ্য ও জেলা নেতৃত্ব যাতে এই দলবদলকারীদের সম্পর্কে অবগত হন, সেই ব্যাপারটিও তুলে ধরা হয়েছিল।

সম্প্রতি এই ব্যাপারে রাজ্য বিজেপির অন্যতম নেতা সুব্রত চট্টোপাধ্যায় বলেন, “দিল্লিতে নয়, বিজেপিতে যোগদান করলে কলকাতায় রাজ্য দপ্তরেই যোগদান করতে হবে।” আর এরপরই অনেকে মনে করতে থাকেন, তাহলে হয়ত বিজেপিতে মুকুল রায়ের কিছুটা ডানা ছাটার জন্যই সুব্রতবাবু এই ধরনের মন্তব্য করলেন। তবে এবার দিল্লিতে বিজেপিতে যোগদানে কোনো বিধিনিষেধ নেই বলে জানিয়ে দিলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, এদিন এই প্রসঙ্গে একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিজেপির এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, “শুধু হেভিওয়েট নেতা নেত্রীরা নন, দিল্লিতে বিজেপির প্রধান কার্যালয়েও রাজ্যের যোগদান পর্ব চলবে। যেমন বড় কোনো সমাজসেবী, ডাক্তার, বুদ্ধিজীবী, সিনেমা জগতের কলাকুশলীরা বিজেপিতে যোগদান করতে পারে। সেই ক্ষেত্রে রাজ্য নেতৃত্বদের বিষয়টি জানিয়ে এই যোগদান পর্বের কাজ চলবে। যে কোনও রাজনৈতিক দল থেকে বিজেপিতে যোগদানের ক্ষেত্রে একটি স্ক্রীনিং কমিটি হয়েছে। সেই কমিটিও গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।”

আর কৈলাস বিজয়বর্গীয়র এই বক্তব্য বিজেপির রাজ্য নেতা সুব্রত চট্টোপাধ্যায়ের যুক্তিকে খন্ডন করে দিল্লিতে বিজেপিতে যোগদানে কোনো অসুবিধে নেই বলে জানানোয় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল। যা সুব্রতবাবুর মতের বিরুদ্ধে গিয়ে কৈলাস বিজয়বর্গীয় দিল্লিতে দলবদলকারীদের যোগদানের পক্ষে আরও বেশি করে সওয়াল করলেন বলেই মনে করছে বিশ্লেষকরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!